kalerkantho


‘ভালো মানুষ না হলে ভালো মুসলিমও হওয়া যায় না’

বিভেদ, হিংসা ছড়ানো এবং সন্ত্রাসে মদত দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার জাকিরের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ জুলাই, ২০১৮ ১৯:১৯



‘ভালো মানুষ না হলে ভালো মুসলিমও হওয়া যায় না’

‘ভালো মানুষ না হলে কখনই ভালো মুসলিম হওয়া যায় না’। এমনই মনে করেন ভারতের ধর্ম প্রচারক ডা. জাকির নায়েক।

ভারতের ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ৫২ বছরের ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েককে নিয়ে বহু বিতর্ক রয়েছে। পিস টিভি নামের একটি চ্যানেলের মাধ্যমে তিনি ইসলাম ধর্মের বানী প্রচার করতেন। তার বিরুদ্ধে সমাজে বিভেদ এবং হিংসা ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে। সন্ত্রাসে মদত দেওয়ার মতো মারাত্মক অভিযোগও রয়েছে জাকিরের বিরুদ্ধে।

যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন ডা. জাকির নায়েক। তিনি দাবি করেছেন, ‘২৫ বছর ধরে ধর্মের প্রচার করেছি, কখনও হিংসা বা সন্ত্রাসে মদত দিইনি।’

বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিতর্কিত মন্তব্যের মাধ্যমে জঙ্গিবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে। এই নিয়ে ভারতের এনআইএ তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেছে। বাংলাদেশের রাজধানী শহর গুলশনে জঙ্গি হামলার সঙ্গেও জাকির নায়েকের নাম জড়ায়। এর পর থেকে আর দেশে ফেরেনি জাকির। যদিও নিজের অবস্থানে অনড় বিতর্কিত এই ধর্ম প্রচারক।

তার মতে, ‘আমার বক্তব্যকে বিকৃত করে আমায় অভিযুক্ত করা হচ্ছে।’ একই সঙ্গে তিনি আরও বলেছেন, ‘বার বার যে কথা বলেছি, সেটাই আবার বলছি- ভালো মানুষ না হলে কখনোই ভালো মুসলিম হওয়া যায় না।’

দিন কয়েক আগে খবর ছড়ায় যে ভারতে ফিরছে ধর্ম প্রচারক ডা. জাকির নায়েক। যদিও সেই খবর ভুয়া বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন তিনি। একই সঙ্গে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন যে ভারত তার জন্য নিরাপদ নয়। ভারতে নিজেকে নিরাপদ মনে করলে তবেই নিজের মাতৃভূমিতে ফিরবেন বলেও তিনি জানিয়েছিলেন।

জাকির নায়েককে দেশে ফেরানোর বিষয়ে মালয়েশিয়া সরকারের সঙ্গে কথা বলে ভারত। যদিও ধর্ম প্রচারক জাকির নায়েকের পাশে দাঁড়ায় ওই দেশের প্রধানমন্ত্রী ডা. মাহাথির মোহাম্মদ। জাকির নায়েককে ওই দেশের নাগরিকত্বও দেওয়া হয়েছে। পাশে দাঁড়ানোর জন্য মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ডা. জাকির নায়েক।



মন্তব্য