kalerkantho


'প্রতিটি ঘুড়ির বদলে একটি করে জীবন নেওয়া হবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ জুন, ২০১৮ ১১:২১



'প্রতিটি ঘুড়ির বদলে একটি করে জীবন নেওয়া হবে'

ছবি অনলাইন

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা থেকে ইসরাইলের দখল করা ভূখণ্ডে ঘুড়ি ও বেলুন  উড়ে যাওয়া নিয়ে অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে ইসরায়েল। এমনকি গাজা থেকে বেলুন উড়ে ইসরায়েলে যেন না পড়ে সেজন্য হিলিয়াম গ্যাস সরবরাহ সীমিত করে দেয়ার পরিকল্পনা করেছে ইসরায়েল।
বেলুন প্রতিরোধে এমনকি হাসপাতালেও এ গ্যাসের সরবরাহে বিধিনিষেধ আরোপ করে দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।

গাজা থেকে উড়ে যাওয়া ঘুড়ির বিষয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন ইসরাইলি নেতারা। দখলদার ইসরাইলের ‘জিয়ুস হাউস’ পার্টির নেতা ও সংসদ সদস্য মোটি ইউগেভ বলেছেন, গাজা থেকে উড়ে আসা প্রতিটি ঘুড়ির মোকাবেলায় একেকজন হামাস নেতাকে হত্যা করতে হবে।

ফিলিস্তিনে ইসরাইলি সামরিক তৎপরতা সমন্বয়কারী কামিল আবু রুকুন এমন সিদ্ধান্ত নিলে দেশটির যুদ্ধমন্ত্রী এভিগডোর লিবারম্যান তাতে অনুমতি দিয়েছেন।

রুকুন বলেন, গাজার বিক্ষোভকারীরা বেলুনে হিলিয়াম গ্যাস ভরে সেগুলো সীমান্তের ওপারে পাঠাচ্ছেন এবং ফলে ইসরাইলের বিভিন্ন স্থানে আগুন ধরে যাচ্ছে।

গাজার নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিরা নিজ ভূমিতে প্রত্যাবর্তনের অধিকারের দাবিতে গত ৩০ মার্চ থেকে বিক্ষোভ করে আসছেন।
বিক্ষোভের সময় গাজাবাসীরা ঘুড়ি ও হিলিয়াম বেলুন উড়িয়ে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। তারা ঘুড়ির লম্বা লেজে আগুন লাগিয়ে সেগুলো উড়িয়ে দিচ্ছেন। এগুলোই এখন ইসরায়েলের আতঙ্ক হয়ে উঠেছে।



মন্তব্য