kalerkantho


ধর্ষণই নিপীড়নের প্রধান অস্ত্র!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ মার্চ, ২০১৮ ১৩:৫৭



ধর্ষণই নিপীড়নের প্রধান অস্ত্র!

সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধে বিরোধীদের দমনে সরকারিবাহিনী ও তাদের মিত্ররা ধর্ষণ ও যৌন নির্যাতনের পথকে বেছে নিয়েছে। আর এই পন্থাই তাদের প্রধান অস্ত্র। বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের এক অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে এই ভয়াবহ তথ্য উঠে এসেছে। 

জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে কেবল সরকারীবাহিনী ও তাদের মিত্ররাই নয় বিদ্রোহীরাও যৌন নির্যাতনের ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে, সরকারীবাহিনীর চেয়ে বিরোধীদের এ নির্যাতনের মাত্রা তুলনামূলকভাবে কম। 

জাতিসংঘের তদন্ত কমিশনের চেয়ারম্যান পাওলো পিনহেইরো বলেছেন, 'সিরিয়ায় সাত বছর ধরে চলমান গৃহযুদ্ধে যুদ্ধরত সব গোষ্ঠীই ভয়াবহ যৌন নির্যাতন ও লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা চালাচ্ছে।'

রিপোর্টে বলা হয়েছে, 'ইসলামিক স্টেটের (আইএস) জঙ্গিরা ব্যভিচারের দায়ে নারীদের পাথর আঘাতে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। আর মেয়েদের জোরপূর্বক বিয়ে ও সমকামীদের হত্যা করেছে।'

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, 'সংঘাতের শুরুর দিকে সরকারিবাহিনী বেসামরিক ব্যক্তিদের বাড়ি তল্লাশি ও স্থল অভিযানের সময় ধর্ষণ করেছে। তাদের হাতে নয় বছরের শিশুও ধর্ষণের শিকার হয়েছে।'

সূত্র: রয়টার্স



মন্তব্য