kalerkantho


মা হতে গিয়ে মরতে বসেছিলেন সেরেনা!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৩:০৩



মা হতে গিয়ে মরতে বসেছিলেন সেরেনা!

মেয়ের জন্ম দিতে গিয়ে মৃত্যুমুখ থেকে ফিরে এসেছিলেন তিনি। এই স্বীকারোক্তি টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামসের। যা এতদিন আড়ালেই ছিল। মেয়ের জন্মের সময় তাঁর শরীরে নানা সমস্যা হয়েছিল। সেই সমস্যার কথা জানিয়েছেন ২৩ গ্র্যান্ড স্লামের মালকিন।

বলেছেন, ‘মেয়ের জন্ম দিতে গিয়ে প্রায় মরে গিয়েছিলাম। শরীরে সমস্যা এমনই ছিল, জরুরি অপারেশন করে মেয়ে অলিভিয়ার জন্ম দিতে হয়েছিল।’

সেরেনা সেদিনের কথা বলতে গিয়ে তাঁর ফেসবুকে লিখেছেন, ‘হঠাৎ দেখা গেল, মেয়ের হার্টরেট গন্ডগোল হচ্ছে। শরীরে নানা সমস্যা দেখা দিতে শুরু করল। ডাক্তাররা বাধ্য হলেন জরুরি ভিত্তিতে অপারেশন করে মেয়ের জন্ম দিতে। তার পরের দিনগুলো আমাকে বেগ দিয়েছে। প্রতিনিয়ত মৃত্যুভয় তাড়া করে ফিরেছে।’

হাসপাতালের নাম না লিখে চিকিৎসক, নার্সদের প্রশংসা করে টেনিস তারকা লিখেছেন ‘চিকিৎসক ও নার্সদের জোরে আমি আজ সকলের সামনে দাঁড়িয়ে রয়েছি। ওঁদের কোনো তুলনা হয় না।’

ঠিক কী হয়েছিল সেরেনার? আসলে ডাক্তারদের মতে, ফুসফুসে হেমাটোমা হয়েছিল। রক্তজমাট বেঁধেছিল ফুসফুসে। যা শরীরের অন্যত্র ছড়াতে শুরু করেছিল। বাচ্চার শ্বাসপ্রশ্বাসেও সমস্যা দেখা দিয়েছিল।

তাঁর কথায়, ‘বাচ্চার জন্মের সময় আমার অদ্ভ‌ুত অনুভূতি হয়েছিল। কিন্তু পরক্ষণেই ভেবেছি, যদি বেঁচে না থাকি! ছয়দিন একটা অনিশ্চিত অবস্থার মধ্যে কাটাতে হয়েছে। রোজই শুনছি, একটার পর একটা আর্টারিতে রক্ত জমাট বাঁধতে শুরু করেছে। রক্ত পাতলা করার ওষুধ দেওয়া হয়েছিল, স্যালাইনের মাধ্যমে।’

তারপরে তিনি লিখেছেন, ‘রক্ত জমাট বাধার সমস্যাটা আমি জানতাম। আমার এই সমস্যা ছিল। তাই তা নিয়ে চিন্তা হচ্ছিল। ছয়দিন কাটিয়ে যেদিন বাড়ি ফিরেছিলাম, সে দিন বুঝতে পারলাম, আমি ফিরে এসেছি।’



মন্তব্য