kalerkantho


মিসরীয় সেনাবাহিনীর সেই জেনারেল আটক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০৯:২৫



মিসরীয় সেনাবাহিনীর সেই জেনারেল আটক

মিসরে জাতীয় নির্বাচনের সময় যত ঘনিয়ে আসছে ততই উৎকণ্ঠা বাড়ছে। মিসরে আগামী মার্চে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বর্তমান সেনাশাসক জেনারেল আবদুল ফাত্তাহ আল সিসির বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দেয়ার পর দেশটির সাবেক এক সেনাকর্মকর্তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সামি আনান নামে এই সাবেক জেনারেলের প্রচার দলের এক সদস্য এ খবর জানিয়েছেন। যদিও তার সম্ভাবনা খুবই কম। যেহেতু আরেক প্রতিদ্বন্দ্বি সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল সামি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আহমেদ শফিকের চেয়ে এগিয়ে আছেন। মিসরের নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় তার নামই বেশি প্রচারিত হচ্ছে। যদিও জেনারেল সামি এখনও নির্বাচনী যুদ্ধে নামার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেননি।


আরো পড়ুন: চূড়ান্ত রায়ে মুরসির ২০ বছরের কারাদণ্ড


তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দিয়ে তিনি সেনাবাহিনীর মধ্যে ফাটল ধরানোর চেষ্টা করেছেন। মিসরের সেনা বিভাগ তাকে গ্রেফতারের ব্যাপারে তাৎক্ষণিক কোনো ব্যাখা দেয়নি। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকেও কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক বিবৃতিতে মিসর সরকারের এক মুখপাত্র বলেছেন, সেনাবাহিনী আনানকে তলব করেছে। কেননা তার প্রার্থিতা ঘোষণার উদ্দেশ্য মিসরের সেনাবাহিনী ও জনগণের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির চেষ্টা করা। বিবৃতিতে অরো বলা হয়, আনান সেনা চাকরিকাল শেষ হয়ে যাওয়া সম্পর্কে সরকারি নথি ভুলভাবে উপস্থাপন করেছেন। সাবেক সেনাকর্মকর্তাদের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য তার চাকরিকাল শেষ হওয়া একটি শর্ত।


আরো পড়ুন: মিশরীয় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ১২


উল্লেখ্য, আনান ছিলেন ২০১২ পর্যন্ত চিফ অব স্টাফ। তখনকার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদ মুরসি তাকে তার নেতা সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী মুহাম্মাদ হোসেন তানতাবিসহ অবসর দিয়েছিলেন। ব্রাদারহুডের সমর্থন সামি আনান প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থিতার ঘোষণা দিলে তাকে শর্তসাপেক্ষে সমর্থন দেয়ার কথা জানিয়েছিল মুসলিম ব্রাদারহুড। ইতিপূর্বে ২০১৪ সালের নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন সামি আনান, যদিও তখন জেনারেল সিসিই জিতে যান।

 



মন্তব্য