kalerkantho


বিবিসি বাংলার প্রতিবেদন

কখন এতো টুইট করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প?

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ জানুয়ারি, ২০১৮ ২১:৫৩



কখন এতো টুইট করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প?

নির্বাচনে জেতার সাত মাস আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প এক সমাবেশে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে তিনি আর টুইটার ব্যবহার করবেন না।

কেন? ২০১৬ সালের এপ্রিল মাসে তিনি বলেছিলেন, "এটা প্রেসিডেন্ট-সুলভ নয়।"

মি. ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এক বছর পার হয়ে গেছে। কিন্তু হোয়াইট হাউজে প্রবেশের পর তিনি যে শুধু টুইটার ব্যবহার করা অব্যাহত রেখেছেন তা নয়, বরং তিনি এই কাজে প্রচুর সময় দিচ্ছেন। দেখা যাচ্ছে, গত এক বছরে তিনি ২,৬০৮টি টুইট করেছেন। অর্থাৎ প্রতিদিন গড়ে সাতটিরও বেশি টুইট করেছেন তিনি।

তার কোনো কোনো টুইট খুবই সাধারণ আবার কিছু কিছু বিস্ফোরক ধরনের।

পরে তিনি তার টুইটার ব্যবহারের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরতে গিয়ে বলেছেন, "এটা আধুনিক কালের প্রেসিডেন্ট-সুলভ।" আর এই কথাটাও তিনি বলেছেন টুইট করেই।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যতোগুলো টুইট করেছেন সেগুলো বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে ৩২ শতাংশই তিনি করেছেন সকাল ছ'টা থেকে ন'টার মধ্যে।

এই সময়েই তিনি টেলিভিশন দেখেন বেশি। কাকতালীয়ভাবে তার জনপ্রিয় টিভি অনুষ্ঠান 'ফক্স এন্ড ফ্রেন্ডস' এই সকালেই প্রচারিত হয়।

এসব টুইটের বেশিরভাগই নিন্দাসূচক বা সমালোচনাধর্মী। বিশ্লেষণে দেখা গেছে তিনি ৫২৭টি টুইট করেছেন প্রশংসা করে কিন্তু ১,২৩৮টি টুইটে তিনি নিন্দা করেছেন।

আর তার বেশিরভাগ আক্রমণেরই লক্ষ্য ছিলো সংবাদ মাধ্যম।


দেখা গেছে, ১৯৬টি টুইট করা হয়েছে ফেইক নিউজ, সংবাদপত্র এবং মূলধারার মিডিয়ার সমালোচনা করে। এবং ১৪৭টি টুইটে তিনি সুনির্দিষ্ট করে মিডিয়ার কথা উল্লেখ করেছেন।

১০০টি টুইট ছিলো সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, তার কর্মকর্তা এবং স্বাস্থ্যসেবা ওবামাকেয়ার সংক্রান্ত। আর হিলারি ক্লিন্টনকে তিনি টুইট করেছেন ৭৯টি।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার চারদিনের মাথায় তিনি প্রথম সংবাদ মাধ্যমকে আক্রমণ করে টুইট করেন। ফক্স নিউজকে তিনি প্রশংসা করেন আর তীব্র নিন্দা করেন সিএনএনের।

সিএনএনকে আক্রমণ করে তিনি যতো টুইট করেছেন, দেখা গেছে সেগুলো সবচেয়ে বেশি শেয়ার করা হয়েছে। সিএনএনের একটি লোগোর সাথে তার কুস্তি লড়ার ভিডিওটি সাড়ে তিন লাখেরও বেশি লোক পুনরায় টুইট করেছেন।

মিডিয়ার বিরুদ্ধে তার টুইট আক্রমণ চরম পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছায় ২৮শে মে যেদিন তিনি খুব সকালেই ৬টি টুইট করেন যেগুলোতে তিনি ফেইক নিউজকে আক্রমণ করেছেন। তার জামাতা জেরেড কুশনার রাশিয়ার কর্মকর্তাদের সাথে গোপনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছেন এরকম একটি খবর মিডিয়াতে প্রকাশিত হওয়ার কয়েক ঘনটার মধ্যেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এসব টুইট করেছিলেন।

মিডিয়াকে আক্রমণ করে টুইট ছাড়ার ক্ষেত্রে কিছুটা বিরতি আসে গত অগাস্ট মাসে যখন দুটো হারিকেন যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হানে এবং উত্তর কোরিয়ার সাথে যুক্তরাষ্ট্রের উত্তেজনা বৃদ্ধি পায় সেই দুই সপ্তাহে। এই সময়কালে তিনি ফেইক নিউজ বা মিডিয়াকে আক্রমণ করে কোনো টুইট করেন নি।

ক্ষমতায় আসার পর প্রথম সাত মাসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং আন সম্পর্কে মাত্র একবার টুইট করেছেন। এবং সেই টুইটে তিনি উত্তর কোরিয়ার নেতার প্রশংসা করেছিলেন।

কিন্তু তার এক মাস পরেই কিম জং আনকে তিনি 'ম্যাডম্যান' বা 'উন্মাদ' এবং 'বেটে ও মোটা' বলে টুইট করেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প টুইটারে সাবেক অভিনেতা এবং ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যের সাবেক গভর্নর আর্নল্ড সোয়ার্জনেগারের সাথে বিবাদে লিপ্ত হন। আক্রমণ করেন লন্ডনের মেয়র সাদিক খানকেও।


মন্তব্য