kalerkantho


নতুন ঘর না হওয়া পর্যন্ত ক্যাম্পে থাকবেন ফিরে যাওয়া রোহিঙ্গারা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৫:১৬



নতুন ঘর না হওয়া পর্যন্ত ক্যাম্পে থাকবেন ফিরে যাওয়া রোহিঙ্গারা

মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও উগ্র বৌদ্ধদের তাণ্ডবে জীবন বাঁচাতে রাখাইন রাজ্য ছেড়ে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়া শুরু করেছে শান্তিতে নোবেল বিজয়ী নেত্রী অং সান সুচির সরকার। বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তির পর গত মঙ্গলবার থেকে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়া শুরু করেছে মিয়ানমার।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন পরিকল্পনায় দেখা গেছে, বাংলাদেশের আশ্রয়কেন্দ্র থেকে সে দেশে ফিরে যাওয়া রোহিঙ্গাদের প্রাথমিকভাবে বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে রাখা হবে। রাখাইন রাজ্যে তাদের ঘরবাড়ি পুনর্নির্মাণ না করা পর্যন্ত তারা আশ্রয়কেন্দ্রেই থাকবেন।

তবে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব দেওয়ার ব্যাপারে কোনো ইঙ্গিত দেওয়া হয়নি। যারা বলছেন, তাদের বসবাসের জায়গা সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে, তারা কোনো বিচারও পাচ্ছেন না।

আরো পড়ুুন : ২০২২ বিশ্বকাপ ফুটবলের প্রতিটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে কাতারেই

এমনকি মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ফিরে যাওয়ার পর যে নিরাপত্তা পাবেন, সে রকমও কোনো প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়নি। এদিকে জাতিসংঘসহ শরণার্থীরা বিষয়টি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

বাংলাদেশের শরণার্থী শিবিরে অাশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা বলছেন, তারা ফিরে যেতে ভয় পাচ্ছেন। তবে অনেকের অবশ্য ভিন্ন মতও রয়েছে। শরণার্থী হয়ে জীবন পার করার চেয়ে মিয়ানমারে ফিরে গিয়ে বাকি জীবন কাটাতে চান তারা।

সূত্র : আলজাজিরা



মন্তব্য