kalerkantho


‘যে মুসলিমরা হিন্দু সংস্কৃতিতে বিলীন হতে পারবে শুধু তারাই ভারতে থাকবে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ জানুয়ারি, ২০১৮ ২১:৩৫



‘যে মুসলিমরা হিন্দু সংস্কৃতিতে বিলীন হতে পারবে শুধু তারাই ভারতে থাকবে’

ভারতের উত্তর প্রদেশের বাল্লিয়া জেলার এক বিজেপি সংসদ সদস্য (এমএলএ) বলেছেন ভারত ‘হিন্দু রাষ্ট্রে’ পরিণত হওয়ার পর শুধু যে মুসলিমরা হিন্দু সংস্কৃতির সঙ্গে নিজেদের একীভূত বা বিলীন করে নিতে পারবে তারাই ভারতে থাকতে পারবে।’

সুরেন্দ্র সিং নামে বাইরিয়ার ওই এমএলএ বলেন, ‘ভারতে খুব কম সংখ্যক মুসলমানই আছেন যারা দেশপ্রেমিক। ভারত একবার হিন্দুরাষ্ট্র (হিন্দু জাতি) হওয়ার পর যে মুসলিমরা নিজেদেরকে আমাদের সংস্কৃতির মধ্যে বিলীন করে নিতে পারবে তারাই ভারতে থাকতে পারবে। আর যারা তা করতে পারবে না তারা অন্য যে কোনো দেশে চলে যেতে পারবে।’

তিনি আরো দাবি করেন, ২০২৪ সালের মধ্যে ভারত একটি হিন্দু জাতি হয়ে উঠবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে একজন ‘অবতার মহাপুরুষ’ আখ্যায়িত করে তিনি বলেন, ‘২০২৫ সালে আরএসএস এর ১০০ বছর পূর্ণ হবে। তাই ২০২৪ সালের মধ্যেই ভারত হিন্দু রাষ্ট্র হয়ে উঠবে। ঈশ্বরের কৃপায় ভারত একটি বিশ্ব পরাশক্তি হতে যাচ্ছে। এজন্য মোদি এবং উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নেতৃত্বকে ধন্যবাদ। ভারত শুধু বিশ্বগুরুই হবে না বরং ২০২৪ সালের মধ্যে একটি হিন্দু রাষ্ট্রও হয়ে উঠবে।’

এসময় তিনি কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সমালোচনা করে বলেন, ‘রাহুল গান্ধীর মধ্যে দুই ধরনের মূল্যবোধ আছে। একটি হলো ইটালিয়ান, আরেকটি ভারতীয়। তিনি কখনোই ভারতীয় চিন্তার পথপ্রদর্শক হতে পারবেন না।’

তিনি বলেন, গান্ধীর এই বংশধর ভারতের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য যে কোনো স্লোগান নিতে পারেন। কিন্তু ভারতকে আরো শক্তিশালী করার মতো শক্তি এবং মূল্যবোধের ঘাটতি আছে তার।

আর তাছাড়া রাহুল গান্ধী ভারতীয় ও ইটালিয়ান সংস্কৃতির মিশ্রণ। ফলে তিনি ভারত এবং ভারতময়তা কী জিনিস তা জানেন না।



মন্তব্য