kalerkantho


হাড় কাঁপানো শীতে আশ্রয়কেন্দ্রে ভিড় গৃহহীনদের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ০৯:৪১



হাড় কাঁপানো শীতে আশ্রয়কেন্দ্রে ভিড় গৃহহীনদের

যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব এবং উত্তর পূর্বাংশে প্রচণ্ড শীতে অন্যদের তুলনায় বেশি নাজেহাল হয়ে পড়েছেন গৃহহীন মানুষ। বস্টনের পাইন স্ট্রিটের আশ্রয় কেন্দ্রে সারি সারি বিছানা ফেলে রাত পার করছেন শত শত মানুষ। রাত বাড়তেই বিভিন্ন স্থান থেকে জড়ো হচ্ছেন অনেকেই।

সেখানকার পাঁচতলা আশ্রয়কেন্দ্রে অন্তত পাঁচশ মানুষের জায়গা হওয়ার কথা। কিন্তু আশ্রয়প্রার্থীর সংখ্যা এতো বেশি যে, সেখানে আর কাউকে জায়গা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

অতিরিক্ত শীত জেঁকে বসেছে নিউ ইংল্যান্ডজুড়ে। টেক্সাস, উত্তর ক্যারোলাইনায় অন্তত তিনজন গৃহহীন মানুষ প্রাণ হারানো সংবাদ পাওয়া গেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই পরিস্থিতি দেখে যে কেউ বুঝতে পারবে যুক্তরাষ্ট্রে গৃহহীন মানুষের সংখ্যা বেড়েছে কয়েকগুণ। গত মাসে এক গবেষণায় দেখা গেছে, ২০১৭ সালের এক রাতে গৃহহীন মানুষের সংখ্যা পাঁচ লাখ ৫০ হাজারেও বেশি হয়েছিল।

২০১৬ সালের তুলনায় সংখ্যাটা এক শতাংশ বেড়েছে বলে গবেষণায় উল্লেখ করা হয়। নিউইয়র্ক থেকে সান ফ্রান্সিসকোসহ সকল শহরেই পাল্লা দিয়ে বেড়েছে বাড়ির দাম। বাড়ছে বাড়িভাড়াও। এসব কারণে নিম্ন আয়ের মানুষরা গৃহহীন হয়ে পড়ছেন। সব মিলিয়ে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখে আরও ভয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছে পরিস্থিতি।

আশ্রয়কেন্দ্রে রাতে কেউ থাকতে পারলেও সকালবেলা তাদের চলে যেতে অনুরোধ করেন কর্তৃপক্ষ। কিন্তু বস্টনে গত ১১ দিন ধরে তাপমাত্রা একেবারেই কম।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, এরপর মাইনাস ১৭ দশমিক আট ডিগ্রি সেলসিয়াসে নামতে পারে তাপমাত্রা। তাই দিনের বেলাতেও কাউকে বাইরে ঠেলে দিতে ইতস্তত করছেন কর্তৃপক্ষ। আশ্রয়কেন্দ্রটির মুখপাত্র বারবারা ট্রেভিসান জানান, আমরা চাই না খোলা রাস্তায় পড়ে থেকে কেউ মারা যাক! অবস্থা এখন তেমনই। সে কারণে দিনের বেলাও কাউকে বের করে দিতে পারছি না।

 



মন্তব্য