kalerkantho


নিজের শহরেই আছড়ে পড়ল কিমের মিসাইল!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৩:১৭



নিজের শহরেই আছড়ে পড়ল কিমের মিসাইল!

নিশানা ভুলে নিজের শহরেই আঘাত হানল উত্তর কোরিয়ার মিসাইল। মার্কিন গোয়েন্দাদের দাবি, উড়ানের মাঝপথে যান্ত্রিক ত্রুটির ফলে বিপত্তি ঘটায় হোয়াসং ১২ মিসাইলটি। দীর্ঘ দিন গোপন রাখলেও সম্প্রতি আমেরিকার গোয়েন্দা বিভাগের নজরে এসেছে কিম জং-উনের পথভোলা মিসাইল (IRBM)-এর কীর্তি। জানা গিয়েছে, ২০১৭ সালের ২৮ এপ্রিল উত্তর কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ের ৯০ মাইল উত্তরে টকচন শহরে আছড়ে পড়ে ওই ক্ষেপণাস্ত্র। উপগ্রহ চিত্র বিচার করে জানা গিয়েছে, বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত হয় শিল্প অথবা কৃষি এলাকার একাধিক ভবন। তবে তার ফলে ২০,০০০ বাসিন্দার শহর টকচনে কোনো গণহত্যা ঘটেনি বলে মনে করছে ওয়াশিংটন।


আরো পড়ুন : সৌদিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার চেষ্টা হুথিদের


জানা গিয়েছে, পুকচ্যাং এয়ারফিল্ড থেকে রওনা হয়ে ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৪৩ মাইল উপর দিয়ে উত্তর-পূর্ব দিক নিশানা করে ২৪ মাইল দূরের গন্তব্যে উড়ে যায় মিসাইলটি। কিন্তু ওড়া শুরু করার মিনিটখানেকের মধ্যে তার প্রথম ইঞ্জিনটি বিকল হয়। তরল জ্বালানি সংবলিত মিসাইলটি এর পরে বেপথু হয়ে টকচন শহরের শিল্প বা কৃষি তালুকে আঘাত হানে। গুগল আর্থ-এর উপগ্রহ চিত্রে দেখা গিয়েছে, বিস্ফোরণের অভিঘাতে একটি বহুতল নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে এবং একটি গ্রিনহাউসের বড় অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।


আরো পড়ুন : বৃদ্ধা মায়ের চোখের সামনে ক্ষুধায় মারা গেল পুত্র


আমেরিকার বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, নতুন বছরের গোড়ায় আবার একটি মিসাইল পরীক্ষা করার তোড়জোড় করছে উত্তর কোরিয়া। কিন্তু কোনো আগাম সতর্কবার্তা ছাড়াই এই ধরনের পরীক্ষার আয়োজন হওয়ার কারণে বিপদের আশঙ্কা তীব্রতর হয়। কিম জং-উনের নিত্যনতুন অস্ত্র পরীক্ষার জেরে প্রমাদ গুনতে শুরু করেছে প্রতিবেশী রাষ্ট্র জাপান। উল্লেখ্য ২০১৭ সালের আগস্ট মাস থেকে কিমের নিশানায় বেশ কয়েকবার পড়তে হয়েছে দ্বীপরাষ্ট্রকে। পিয়ংইয়ংয়ের আগ্রাসী মনোভাবের কড়া সমালোচনা করে জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে জানিয়েছেন, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের চেয়েও বেশি মারাত্মক পরিস্থিতির মুখোমুখি তাঁর দেশ।

বিষয়টি আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলে উত্তর কোরিয়াকে চাপে রাখার জন্য তিনি আবেদন জানিয়েছেন। আবার নতুন বছরের গোড়াতেই হুমকি আর পাল্টা-হুমকির পরিচিত লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং-উন। তার জল কত দূর গড়ায়, তা নিয়েই আশঙ্কার প্রহর গুনছে বিশ্ব।

 



মন্তব্য