kalerkantho


এবার যুক্তরাষ্ট্রে পারমাণবিক হামলার হুমকি দিল হাফিজ সাঈদ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ জানুয়ারি, ২০১৮ ১৯:৪৬



এবার যুক্তরাষ্ট্রে পারমাণবিক হামলার হুমকি দিল হাফিজ সাঈদ!

পাকিস্তানের পরমাণু বোমা ইসলামের সম্পদ। এই ভাষাতেই এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দিল পাকিস্তানের জঙ্গি নেতা হাফিজ সাঈদ। জেরুজালেম মুক্ত করার জন্য এই অস্ত্রই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হতে পারে বলে বার্তা দিয়েছে এই আন্তর্জাতিক জঙ্গি। পাকিস্তানকে দেওয়া সামরিক অনুদান বন্ধ করে দেওয়ার বার্তা দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ট্যুইট করার পরই এই জিহাদের হুমকি শোনা গেল তার গলায়।

যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের বিরুদ্ধে জিহাদের ডাক দিতে শোনা গিয়েছে হাফিজ সাঈদকে। লাহোরের এক জনসভায় এই ঘোষণা করেছেন তিনি। সঙ্গে ছিল তার ভাই আব্দুর রহমান মাক্কু। লাহোরের ইস্তাম্বুল চকে ‘তাহাফুজ বায়তুল মুকাদ্দাস’ নামের ওই সভায় যোগ দিয়েছিলেন তারা।

সাঈদের বিরুদ্ধে ঝুড়ি ঝুড়ি অভিযোগ থাকা সত্ত্বেও তাকে বন্দি করেনি পাকিস্তান। কিছুদিনের জন্য গৃহবন্দি করা হলেও পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এবার একেবারে প্রকাশ্য জনসভা থেকে পরমাণু হামলা করার ডাক শোনা গেল তার গলায়।

এই জঙ্গিনেতার দাবি, ‘পাকিস্তানের পরমাণু বোমা হল ইসলামের সম্পদ। জেরুজালেমকে মুক্ত করার জন্য এটা ব্যবহার করতে হবে। এটা আমার প্রকাশ্য ঘোষণা।’ পরে সঈদ আরও বলে, ‘যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষণা করার জন্য একটা ইসলামিক সম্মেলন করতে হবে, যেখানে যোগ দেবে আইএসের মাথারাও। আইএসের চাপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র বন্ধ হবে।’

এদিকে, পাকিস্তানকে সাহায্য করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যে অস্বীকার করেছে, তার দায় ভারতের ঘাড়ে চাপিয়েছে হাফিজ সাঈদ। তার অভিযোগ, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পাকিস্তানি মিলিটারিদের সাহায্য করতে অস্বীকার করেছে কারণ, এর পিছনে ভারতের হাত রয়েছে।

হোয়াইট হাউজ সম্প্রতি একটি ঘোষণা করেছে। তাদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, পাকিস্তানকে ২৫৫ মিলিয়ন ডলার পাঠানোর কথা ছিল। মার্কিন প্রশাসন সেই টাকা আর পাঠাবে না। এর পাশাপাশি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ট্যুইটারে জানিয়েছেন, এর আগে ‘বোকার মতো’ পাকিস্তানকে ৩৩ বিলিয়ন ডলার দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গত ১৫ বছর ধরে এই টাকা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পরিবর্তে যুক্তরাষ্ট্র কিছুই পায়নি। তাই এবার টাকা দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হবে।

ট্রাম্প ট্যুইটে এও লেখেন, আফগানিস্তানে যেসব সন্ত্রাসবাদীদের খুঁজে বের করেছিল যুক্তরাষ্ট্র, তাদের নিরাপদে থাকার বন্দোবস্ত করেছিল পাকিস্তান। যুক্তরাষ্ট্র গত ১৫ বছর ধরে পাকিস্তানকে যে ৩৩ বিলিয়ন ডলার দিয়েছে তার পরিবর্তে পাকিস্তান মিথ্যা ও প্রতারণা ছাড়া কিছু দেয়নি। যুক্তরাষ্ট্রের নেতাদের কি তারা এতটাই বোকা পেয়েছে?


মন্তব্য