kalerkantho


নিউ ইয়র্কের বাস টার্মিনালে হামলাকারী আকায়েদ বাংলাদেশি!

সাবেদ সাথী, নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

১১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ২৩:১৭



নিউ ইয়র্কের বাস টার্মিনালে হামলাকারী আকায়েদ বাংলাদেশি!

ছবি : কালের কণ্ঠ

নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনের বাস টার্মিনালের হামলাকারী সন্দেহে আটক যুবক আকায়েদ উল্লাহর জাতীয়তা নিশ্চিত না হলেও তিনি বাংলাদেশি নাগরিক বলে উল্লেখ করেছেন নিউ ইয়র্ক পুলিশ। আহতদের মধ্যে থেকে একজনকে সন্দেহভাজন হিসেবে তাকে আটক করা হয়েছে।

নিউ ইয়র্কের একজন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা দাবি করেছেন আটককৃত ২৭ বছর বয়সী আকায়েদ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত। তিনি আইএস-এর দ্বারা অনুপ্রাণিত। যাকে আটক করা হয়েছে বিস্ফোরণে যে পাইপবোমা ব্যবহার করা হয়েছে তা নিশ্চিত করেছে পুলিশ। প্রাথমিকভাবে বিস্ফোরণের ঘটনাটিকে জঙ্গি হামলা মনে করছে তারা। তবে নিউ ইয়র্ক পুলিশ আকায়েদের জাতীয়তা এখনও নিশ্চিত করেনি।

নিউ ইয়র্ক পুলিশকে উদ্ধৃত করে বিভিন্ন মার্কিন ও ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, বিস্ফোরণের ঘটনায় চারজন আহত হয়েছে। তবে এদের কারও জীবনশঙ্কা নেই। শহর কর্তৃপক্ষ বলছে, বিস্ফোরণের ঘটনাটি সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে। নিউ ইয়র্ক পুলিশ একটি টুইট বার্তায় জানায়, আহতদের মধ্য থেকেই একজনকে সন্দেহভাজন হিসেবে নিরাপত্তা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। আটক সন্দেহভাজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় বেলিভিউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় আর কেউ আহত হয়নি জানিয়ে পুলিশ সবাইকে এলাকাটি এড়িয়ে চলতে বলেছে। 

নিউ ইয়র্ক পুলিশ বিভাগের সাবেক কমিশনার বিল ব্রাটন এমএসএনবিসি-কে বলেন, লোকটি আইএস দ্বারা অনুপ্রাণিত ও বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত। নিউইয়র্ক পোস্টে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে বলা হয়, সম্ভবত পরিকল্পিত হামলার উদ্দেশ্যে সন্দেহভাজন ব্যক্তিটি তার জ্যাকেটের ডান পাশে বোমাটি বহন করে নিয়ে যাচ্ছিল। সকাল ৭টা ৪০ মিনিটের দিকে এটি বিস্ফোরিত হয়।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) সকালে টাইমস স্কয়ারের কাছে পোর্ট অথরিটি বাস টার্মিনালে বিস্ফোরণের খবর পেয়ে নিজেদের দাফতরিক টুইটার পাতায় একটি টুইট করেছে নিউ ইয়র্ক পুলিশ বিভাগ। এতে বলা হয়, ‘নিউ ইয়র্ক পুলিশ বিভাগ ম্যানহাটনের ৮ নং এভিনিউর ৪২ নং সড়কে একটি বিস্ফোরণের খবর পেয়েছে এবং ঘটনা সম্পর্কে অনুসন্ধান শুরু করেছে। এ, সি ও ই সারিগুলো ফাঁকা করা হচ্ছে।’ বিস্ফোরণের পরপরই নিউ ইয়র্কের বিভিন্ন রুটের যান চলাচল এলোমেলো হয়ে যায়। 

মেট্রোপলিটন পরিবহন কর্তৃপক্ষ বলেছে, এ ঘটনার পর থেকে বেশ কয়েকটি ট্রেন ৪২তম রাস্তাটি এড়িয়ে চলছে। আটক আকায়েদ ব্রুকলিনের বাসিন্দা হলেও সেখানে যোগাযোগ করে কোন বাংলাদেশি তার পরিচিতি জানাতে পারেনি। তবে তার পুরো ঠিকানা পেতে আরো কিছুটা সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কমিউনিটির নেতারা।


মন্তব্য