kalerkantho


ক্যান্সার আক্রান্ত কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১৭:৩৩



ক্যান্সার আক্রান্ত কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ!

শিশু থেকে বয়স্ক নারী, ভারতে বিকৃত যৌন লালসার হাত থেকে রেহাই মিলছে না কারও। এমনকী, ক্যান্সার আক্রান্ত তরুণীও গণধর্ষণের শিকার হলেন। এরপর এক ব্যক্তির সাহায্য চাইতে গিয়ে ফের ধর্ষিতা হলেন তিনি। ভয়াবহ এই ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের লখনউয়ে।

১৬ বছরের ওই কিশোরীর অভিযোগ, দুই যুবক মিলে ধর্ষণ করে তাঁকে রাস্তার ধারে ফেলে যায়। তার পর তাঁকে বাড়ি পৌঁছে দিতে এক পথচারীর সাহায্য চাইলে সেও ধর্ষণ করে ওই কিশোরীকে। শনিবারের ঘটনা, লখনউ থেকে একটু দূরে সরোজিনী নগর গ্রামে।

ধর্ষিতার অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ এক জনকে গ্রেপ্তার করেছে। বাকি দু’জনের সন্ধান মেলেনি এখনও। পুলিশের কাছে লিখিত ভাবে ওই কিশোরী জানিয়েছেন, ক্যানসার থেকে সেরে ওঠার পর দিনকয়েক হলো তিনি বাড়ি থেকে বেরোতে শুরু করেছিলেন। শনিবার সন্ধ্যায় তিনি গিয়েছিলেন বাড়ির কাছেই একটি বাজারে। বাজারেই শুভম নামে এক পরিচিত যুবকের সঙ্গে দেখা হয়ে যায় ওই কিশোরীর। শুভম তাঁকে বাইকে চাপিয়ে বাড়িতে পৌঁছে দেবে বলে। শুভমের কথা শুনে তার বাইকে চেপে বসেন ওই কিশোরী।

কিশোরী বলেন, শুভম কিশোরীকে চাপিয়ে বাইকটি নিয়ে চলে যায় অন্যত্র। সেখানে সুমিত নামে শুভমের এক বন্ধু অপেক্ষা করছিল। শুভম আর সুমিত দু’জনে মিলে ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে রাত ১১ টার  দিকে তাকে সেখানে ফেলে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর মোটর সাইকেলে চেপে ওই রাস্তায় এসে পৌঁছান স্থানীয় এক কনট্রাক্টর। কিশোরী ওই কনট্রাক্টরকে তাঁর বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার অনুরোধ করেন। বীরেন্দ্র যাদব নামে ওই কনট্রাক্টরও তাঁকে ধর্ষণ করেন বলে ওই কিশোরীর অভিযোগ।

রাত দুটার দিকে স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে পুলিশ খবর পায়, রাস্তায় এক কিশোরীকে প্রায় অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা গেছে। পুলিশ কিশোরীকে উদ্ধার করে তাঁর বাড়িতে পৌঁছে দেয়। পুলিশ কনট্রাক্টর বীরেন্দ্র যাদবকে গ্রেপ্তার করেছে। তবে শুভম ও সুমিতের খোঁজ এখনও পায়নি পুলিশ।


মন্তব্য