kalerkantho


৯ বছর কোমায় থাকার পর মারা গেলেন মন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ নভেম্বর, ২০১৭ ১৫:৩৮



৯ বছর কোমায় থাকার পর মারা গেলেন মন্ত্রী

দীর্ঘ ৯ বছর কোমায় থাকার পর আজ সোমবার দুপুরে মারা গেলেন ভারতের চতুর্দশ লোকসভার একজন অন্যতম সদস্য প্রিয়রঞ্জন দাশমুন্সি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। মৃত্যুর সময় প্রিয়রঞ্জনের পাশে ছিলেন তার স্ত্রী দীপা দাশমুন্সি ও ছেলে মিছিল। তিনি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে ২০০৪ সালে পশ্চিমবঙ্গের রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন। কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীর দায়িত্বেও ছিলেন তিনি।

২০০৮ সালে স্ট্রোকে আক্রান্ত হন প্রিয়রঞ্জন। তারপর তাকে নিয়ে যাওয়া হয় দিল্লির অ্যাপোলো হাসপাতালে। কোমাচ্ছন্ন অবস্থায় ছিলেন কংগ্রেসের প্রাক্তন সাংসদ। ডাক্তাররা জানিয়েছিলেন মস্তিষ্কে রক্তসরবরাহ ছিন্ন হয়েছে তার। সে জন্যই তিনি কথা বলতে পারবেন না বা কারওকে চিনতেও পারবেন না। ট্র্যাকিয়োস্টোমি টিউবের মাধ্যমে তিনি শুধু নিঃশ্বাসটুকু নিচ্ছিলেন। 

কংগ্রেসের এই নেতার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে রাজনৈতিক মহলে। তার একসময়ের সঙ্গী বর্তমানে তৃণমূল নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায় প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেছেন, 'দ্বিতীয়বার পিতৃহারা হলাম।' শোকপ্রকাশ করেছেন অন্যান্য রাজনৈতিক নেতানেত্রীরাও। ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত তিনি সংসদের সদস্য ছিলেন। প্রথম UPA সরকারের আমলে সামলেছেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রক ও কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের দায়িত্ব।

প্রিয় প্রয়াণে শোকাহত ক্রীড়াজগতও। ফুটবলেও তাঁর অবদান ছিল বিরাট। প্রায় ২০ বছর তিনি অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারোশনের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। তিনিই প্রথম ভারতীয় যিনি ফিফা বিশ্বকাপের ম্যাচে ম্যাচ কমিশনার ছিলেন।


মন্তব্য