kalerkantho


মহড়ায় তুরস্ককে শত্রু হিসেবে উপস্থাপনের পর ক্ষমা চাইল ন্যাটো

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ নভেম্বর, ২০১৭ ১১:০১



মহড়ায় তুরস্ককে শত্রু হিসেবে উপস্থাপনের পর ক্ষমা চাইল ন্যাটো

ছবি অনলাইন

নরওয়েতে ন্যাটোর সামরিক মহড়ায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান এবং সে দেশের প্রতিষ্ঠাতা মুস্তাফা কামাল আতাতুর্ককে জোট বাহিনীর শত্রু হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছিল। এতে মহড়া থেকে তুরস্ক তাদের সেনা প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

তুরস্ক ছেড়েছে জার্মানির সামরিক বাহিনী

এ ঘটনায় শুক্রবার ন্যাটো তুরস্কের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছে। জোটভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে সমন্বয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে নরওয়ের দক্ষিণাঞ্চলের শহর স্তাভানগারে এ মহড়ার আয়োজন করা হয়।

বিব্রতকর এ ঘটনায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান। তিনি বলেন, ‘এভাবে জোট গড়া সম্ভব নয়। ঘটনার প্রতিবাদে মহড়া থেকে আংকারা তাদের ৪০ সেনাকে প্রত্যাহার করে নিচ্ছে। ’

রাশিয়া বনাম তুরস্ক, কার কত শক্তি?

এ ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় ন্যাটোর সঙ্গে তুরস্কের যাতে আবার সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার মতো ঘটনা না ঘটে সে লক্ষ্যে ন্যাটোর সেক্রেটারি জেনারেল জ্যঁ স্টোলটেনবার্গ দ্রুততার সঙ্গে দুঃখ প্রকাশ করেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘যে ঘটনা ঘটেছে তার জন্য আমি দুঃখিত। ঘটনাটি কোনো একক ঘটনার ফলে ঘটেছে এবং এখানে ন্যাটোর দর্শনের প্রতিফলন হয়নি। তুরস্ক ন্যাটোর শক্তিশালী মিত্র এবং তারা জোট নিরাপত্তায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে থাকে।

স্টোলটেনবার্গ আরো বলেন, ‘ঘটনার জন্য যিনি দায়ী তিনি ন্যাটোর কর্মকর্তা নন।


মন্তব্য