kalerkantho


মর্মান্তিক!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৬:৫৮



মর্মান্তিক!

'লঘু পাপে গুরু দণ্ড। ' প্রচলিত এই প্রবাদ বাক্যটিকেই ফের একবার সত্যি প্রমাণ করে দিল ভারতের বিহারের নালন্দা জেলার একটি মর্মান্তিক ঘটনা।

বিনা অনুমতিতে গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের বাড়িতে প্রবেশ করায় হেনস্তার শিকার হতে হল ৫৪ বছরের বৃদ্ধকে। জুতাপেটা থেকে শুরু তাঁর নিজের থুতু নিজেকেই চাটতে বাধ্য করা হল। ঘটনাটির কথা প্রকাশ্যে আসতেই ছড়িয়েছে তীব্র চাঞ্চল্য। কারণ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারও এই জেলার বাসিন্দা।

জানা গিয়েছে, নালন্দার নুরসরাই ব্লকের আজাইপুর গ্রামের বাসিন্দা ওই ৫৪ বছরের বৃদ্ধ তাঁর একটি কাজের জন্য পঞ্চায়েত প্রধানের বাড়িতে গিয়েছিলেন। কিন্তু না বলে বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করার জন্য বেজায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে পঞ্চায়েত প্রধানের বাড়ির লোকজন। তারপরই হেনস্তার শিকার হতে হয় ওই বৃদ্ধকে। মাটিতে থুতু ফেলিয়ে তাঁকে চাটতে বাধ্য করা হয়। পাশাপাশি মেয়েদের জুতো দিয়ে মারাও হয়।

ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। খোদ মুখ্যমন্ত্রীর জেলায় এই ধরনের প্রশ্নের মুখে পড়েছে প্রশাসন। বিহারের মন্ত্রী নন্দকিশোর যাদব ঘটনার কড়া ভাষায় নিন্দা করেছেন। সংবাদসংস্থা এএনআই-কে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, আমি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। এই রাজ্যে এ ধরনের ঘটনা কখনই মেনে নেওয়া হবে না। দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তি নেওয়া হবে। রাজ্যের মানুষের উচিত বিজেপি এবং দলের কর্মীদের উপর আস্থা রাখা। আমরা নিশ্চিত করব যাতে আগামিদিনে এরকম ঘটনা না ঘটে। '

- ইন্টারনেট থেকে


মন্তব্য