kalerkantho


কানাডায় মুখ ঢেকে রাখার ওপর নিষেধাজ্ঞা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৬:১৭



কানাডায় মুখ ঢেকে রাখার ওপর নিষেধাজ্ঞা

দেশটির কুইবেক রাজ্য প্রশাসন সম্প্রতি একটি ধর্মীয় নিরপেক্ষতা বিল পাস করেছে। এতে সরকারি সেবা দেয়া-নেয়ার সময় নাগরিকদের মুখ খোলা রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বিলে নির্দিষ্ট কোনো পোশাকের কথা উল্লেখ না করলেও সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, মুসলিম নারীদের লক্ষ্য করে বিলটি করা হয়েছে।

কূটনীতিক, পুলিশ সদস্য, শিক্ষিকা, বাস চালকসহ সরকারি হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক, সেবিকা, দন্ত্য চিকিৎসকদের ক্ষেত্রে এই আইন প্রযোজ্য হবে।

কুইবেকের প্রধানমন্ত্রী ফিলিপ কুইলার্ড বলেন, ‘‘সরকারি সেবা দেয়া-নেয়ার ক্ষেত্রে মুখ খোলা রাখতে হবে। শুধু কুইবেক নয়, ক্যানাডার একটা বড় জনগোষ্ঠী এমনটা মনে করেন। আমি আপনার সঙ্গে কথা বলছি, আপনি আমার সঙ্গে বলছেন। আমি আপনার চেহারা দেখছি, আপনি আমারটা দেখছেন। এটা খুবই স্বাভাবিক ব্যাপার। ''

কুইলার্ড মনে করেন, অনেকে এই বিল চ্যালেঞ্জ করতে পারেন। তবে সহজ যোগাযোগের জন্য, একজন আরেকজনকে চেনার জন্য, নিরাপত্তার জন্য এটা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

নতুন আইন অবিলম্বে কার্যকর হবে। তবে আগামী জুনের মধ্যে আইন প্রয়োগের নীতিমালা তৈরি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে কুইবেকে ইসলামভীতি বেড়েছে। গত জানুয়ারিতে সেখানকার এক মসজিদে হামলায় ছয় ব্যক্তি নিহত হন।
ফ্রান্স, বেলজিয়াম, নেদারল্যান্ডস, বুলগেরিয়া ও জার্মানির বাভারিয়া রাজ্যে সরকারি সেবা আদানপ্রদানের ক্ষেত্রে মুখ ঢাকা পোশাক পরার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে।

কুইবেকের এই আইনের সমালোচনা করেছে রাজ্যের দুটি প্রধান বিরোধী দল। বিভিন্ন অ্যাডভোকেসি গ্রুপ ও শিক্ষাবিদরাও বিলের সমালোচনা করেছেন। ‘ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ ক্যানাডিয়ান মুসলিম' বলছে,  বিলের বিরুদ্ধে আদালতে চ্যালেঞ্জ জানানো যায় কিনা তা খুঁজে দেখা হচ্ছে।

এদিকে, ক্যানাডার সংসদে বিলের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোরমন্তব্য জানতে চাওয়া হয়েছিল। এই বিল চ্যালেঞ্জ করবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘‘দেশের আইন অনুযায়ী সব নাগরিকের অধিকার ও স্বাধীনতা রক্ষার বিষয়টি আমি নিশ্চিত করব। ''

- ডিডাব্লিউ


মন্তব্য