kalerkantho


তিন তালাক প্রথা ছয় মাসের জন্য রদ করল ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ আগস্ট, ২০১৭ ১৩:১৪



তিন তালাক প্রথা ছয় মাসের জন্য রদ করল ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

তাৎক্ষণিকভাবে এক সঙ্গে তিন তালাক বলে মুসলিমদের বিবাহবিচ্ছেদকে নারীদের জন্য অসম্মানজনক এবং অসাংবিধানিক বলে ঘোষণা করেছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। একই সঙ্গে এ বিষয়ে ছয় মাসের মধ্যে আইন প্রণয়নে ভারতের সংসদকে নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত।

আর ছয় মাসের মধ্যে নতুন আইন করা না হলে রদ অব্যাহত থাকবে বলেও জানিয়ে দিয়েছে আদালত।

আজ মঙ্গলবার ভারতের সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন। তবে বিচারপতিদের সবাই রায়টিতে সম্মত দেননি।

সংখ্যাগরিষ্ঠের ভিত্তিতে দেওয়া রায় ঘোষণাকালে প্রধান বিচারপতি জে এস খেহর বলেন, এটা খুবই সংবেদনশীল মামলা, যেখানে অনুভূতির যোগ আছে। আমরা ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারকে এ বিষয়ে উপযুক্ত আইন তৈরির বিষয়টি বিবেচনার নির্দেশ দিয়েছি।

তিন তালাককে বাজে বিধান আখ্যা দিয়ে সর্বোচ্চ আদালত বলেন, আমরা আশা করি, আইন তৈরির সময় পার্লামেন্ট মুসলিম পারিবারিক আইনের বিষয়টি বিবেচনায় নেবে। সব পক্ষকে রাজনীতিমুক্ত হয়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

রায়ের সময় কিছু মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশে তিন তালাক প্রথা চর্চা হয় না উল্লেখ করে আদালত বলেন, স্বাধীন ভারত কেন এই প্রথা থেকে মুক্ত হতে পারবে না? ইসলাম ধর্মে একে তালাক-এ-বিদাত বলা হয়।

ভারতের সংবিধান অনুযায়ী, তিন তালাক বৈধ।

তবে স্কাইপ ও হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে তালাক পেয়ে কয়েকজন নারী প্রায় দেড় হাজার বছর ধরে চলা এই প্রথাকে চ্যালেঞ্জ করেন।

মঙ্গলবার বিভিন্ন ধর্মের পাঁচ বিচারক তালাকের বিষয়ে রায় দেন। তাঁরা হলেন প্রধান বিচারপতি খেহর, বিচারপতি কুরিয়ান জোসেফ, বিচারপতি রোহিন্তন ফালি নরিমান, বিচারপতি উদয় উমেশ ললিত ও বিচারপতি এস আবদুল নাজির। তাঁদের বেঞ্চে গত ১২ থেকে ১৮ মে এ বিষয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আজ চূড়ান্ত রায় দেওয়া হয়।

তিন তালাকের অবসান চেয়ে আবেদন করেছিলেন মুসলিম মহিলা ও মানবাধিকার সংগঠন। এমনই ৫টি আবেদনের ভিত্তিতেই এই শুনানির সিদ্ধান্ত নেয় সুপ্রিম কোর্ট। পাঁচটি আলাদা আলাদা বিশ্বাস এবং ধর্মমতের ৫ বিচারপতিকে নিয়ে তৈরি হয় সাংবিধানিক বেঞ্চ।

সূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া


মন্তব্য