kalerkantho


মার্কিন নিষেধাজ্ঞার জবাবে সামরিক বাজেট বাড়াল ইরান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ আগস্ট, ২০১৭ ২০:৫১



মার্কিন নিষেধাজ্ঞার জবাবে সামরিক বাজেট বাড়াল ইরান

ইরানের নতুন আপগ্রেড করা সায়্যাদ-৩ আকাশ প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র। ইরানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশ করা হয়েছে এ ছবি।

গত জানুয়ারি মাসে একটি দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত নেয়। জুলাই মাসে নিষেধাজ্ঞাটি কার্যকর হওয়ার পর তার পাল্টা পদক্ষেপ হিসাবে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি সম্প্রসারণের পদক্ষেপ নিচ্ছে ইরান। এছাড়া দেশের বাইরে সামরিক তৎপরতা বাড়ানোর জন্যও বাজেটে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

মার্কিন নিষেধাজ্ঞার জবাবে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি সম্প্রসারণ এবং দেশের বাইরে সামরিক তৎপরতা বাড়াতে ৫০ কোটি ডলারের একটি বিলে একচেটিয়া সমর্থন দিয়েছেন ইরানের এমপিরা। এতে ইরান-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের আরও অবনতির আশঙ্কা করছেন বিশ্লেষকরা।

নতুন বিলটি পাশের সময় এমপিরা "আমেরিকা নিপাত যাক" বলে স্লোগান তোলেন। ইরানের সংসদের স্পীকার আলি লারিজানি বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্যে আমেরিকার "সন্ত্রাসী তৎপরতা এবং অ্যাডভেঞ্চারে'র" জবাব দিতে এই পদক্ষেপ।

ইরানের সংসদে অনুমোদন পাওয়া বিলটিতে উপসাগরীয় অঞ্চলে মার্কিন সামরিক এবং গোয়েন্দা তৎপরতার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা রয়েছে।

ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচির প্রধান মীমাংসাকারী আব্বাস আরাকচি বলেছেন, নতুন এই বিলের অর্থ এই নয় যে, ইরান পারমানবিক মীমাংসা চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসছে।

পারমানবিক অস্ত্র কর্মসূচি বন্ধের শর্তে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা ওঠানোর ব্যাপারে ২০১৫ সালে বিশ্বের ছটি দেশের সাথে ইরান একটি মীমাংসা চুক্তি করে। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এই চুক্তির ঘোর বিরোধী।

ফলে কার্যত কোনো অগ্রগতি হয়নি এ বিষয়ে।

সূত্র : বিবিসি ও ডন


মন্তব্য