kalerkantho


'টিয়ারাই আমাকে খাঁচাবন্দি করেছে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ মার্চ, ২০১৭ ১৩:৫৬



'টিয়ারাই আমাকে খাঁচাবন্দি করেছে'

২০০৪ সালের সুনামি। দক্ষিণ ভারতের উপকূলবর্তী এলাকার মানুষের জীবন ছারখার করে দেয় প্রাকৃতিক এই দুর্যোগ।

একই সঙ্গে এক বিশাল পরিবর্তন ঘটে যায় চেন্নাইয়ের বাসিন্দা শেখরের জীবনেও। পেশায় তিনি ক্যামেরা সারান। কিন্ত, বর্তমানে তাকে সারা দেশ চেনে 'বার্ডম্যান' নামে।  

'পাখি মানুষ'। শুনতে মজার হলেও, নাম-কাহিনী যেকোনো মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে বাধ্য। শেখরের কথায়, সুনামির কয়েক দিন পর হঠাৎই একদিন দুটি টিয়া পাখি আসে তার ছাদে। তাদের খেতেও দেন শেখর। পরের দিন আরও দুজন সঙ্গী নিয়ে আসে তারা। শেখর হতাশ করেনি তাদেরকেও। এ ভাবেই টিয়ার সংখ্যা বাড়তে থাকে। বর্তমানে শেখরের অতিথি সংখ্যা প্রায় ৪০০০।  

প্রতিদিন ভোর ৪টার সময় উঠে 'সবুজ' অতিথিদের খাবার তৈরি করেন শেখর। রোজ দু-বেলাই তারা আসে। নিশ্চিন্তে গ্রহণ করে ক্যামেরা রিপেয়ারম্যানের আতিথেয়তা।
টেলিভিশনের এক চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শেখর জানিয়েছেন, সুনামির পর থেকে তার শহর ছেড়ে তিনি কখনও কোথাও যাননি। কারণ পাখিগুলো অভুক্ত থেকে যাবে। শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি। কারণ, তার হাঁটুর ব্যথার কারণে ছাদে উঠে টিয়াদের খেতে দিতে বর্তমানে তার বেশ কষ্ট হয়।  

শেখর জানিয়েছেন, তার আয়ের প্রায় ৪০% তিনি ব্যয় করেন তার সবুজ অতিথিদের জন্য। সমাজের কাছে তার বার্তা এটাই যে, সকল প্রাণীরই বাঁচার অধিকার রয়েছে। এবং এ দায়িত্ব মানুষেরই যে, তারা প্রাণিজগৎকে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করুক।
সূত্র : এবেলা


মন্তব্য