kalerkantho


ফ্রান্সে জোড়া হামলায় আহত ৩

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ২২:২৬



ফ্রান্সে জোড়া হামলায় আহত ৩

ফ্রান্সে ফের জঙ্গি হামলার আশঙ্কা। প্রথমে প্যারিসে আইএমএফের সদর দপ্তরে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া যায়।

এরপর খবর পাওয়া গেল, ফ্রান্সের গ্রাসের একটি স্কুলে ঢুকে পড়েছে এক বন্দুকধারী। গুলি চালিয়ে জখম করেছে ৩ ছাত্রকে। যদিও কারা এই হামলা চালিয়েছে, তা নিয়ে এখনো পরিষ্কার তথ্য পাওয়া যায়নি। কেউ বলছে, জঙ্গি যোগ থাকতে পারে হামলার সঙ্গে। অন্যদিকে পুলিশের দাবি দুই ছাত্রের মধ্যে ঝামেলা হওয়াতেই গুলি চালানো হয় স্কুলে। সঙ্গে সঙ্গেই অবশ্য বন্দুকধারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শোনা যাচ্ছে, পুলিশ বন্দুকধারীর কাছ থেকে একটি রাইফেল ও দুটি গ্রেনেড উদ্ধার করেছে।
 
প্রথমে, সকালে আইএমএফের সদর দপ্তরে বিস্ফোরণ ঘটে। দপ্তরের এক কর্মী সাধারণ চিঠি ভেবে একটি খাম খুলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু খুলতেই তীব্র শব্দে কেঁপে উঠল অফিস। কর্মীর হাতেই ফাটল বোমা। ওই খামের ভেতরেই ছিল বিস্ফোরক। বড় ধরনের হামলার আশঙ্কায় সঙ্গে সঙ্গে দপ্তরের ১৫০ কর্মীকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হল নিরাপদ আশ্রয়ে। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, খামে রাখা বিস্ফোরক ফেটে আহত হয়েছেন ওই কর্মী। পুড়ে গেছে হাত মুখ ও ঘাড়ের একটা অংশ। আপাতত তাঁর চিকিৎসা চলছে হাসপাতালে। তবে বিস্ফোরণের ফলে ওই এক কর্মী ছাড়া আর কেউ আহত হননি। স্থানীয় এক সংবাদপত্র দাবি করেছে, বড় কোনো বিস্ফোরক নয়, খামে ছিল আতশবাজি। তাই এর সঙ্গে জঙ্গি যোগ থাকার সম্ভাবনা তেমন নেই।

জার্মানিতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ৬ সপ্তাহ আগে এমনই এক পার্সেল করা বিস্ফোরক নিয়ে আতঙ্ক ছড়ায়। জার্মানির অর্থমন্ত্রীর অফিসে পাওয়া গিয়েছিল বিস্ফোরক। সেই বিস্ফোরক উদ্ধার করার পর জার্মান পুলিশ জানায়, বিস্ফোরক পার্সেলের গায়ে গ্রিসের ডাকটিকিট রয়েছে। এমনকী সে দেশের এক রাজনৈতিক দলের সদস্যের নামও রয়েছে। গোটা ঘটনায় গ্রিসের ওই দলের জড়িয়ে থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয় গ্রিক প্রশাসন। পাশাপাশি জানায়, কীভাবে দেশের সীমান্ত নিরাপত্তা পেরিয়ে এই বাক্সটি জার্মানি পৌঁছে গেল, সেটিও খতিয়ে দেখা হবে।

সূত্র: আজকাল


মন্তব্য