kalerkantho


দক্ষিণ ভারত জুড়ে খরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০৪:০৪



দক্ষিণ ভারত জুড়ে খরা

দুই বছর পর গত মরশুমে সারা দেশ প্রায়-স্বাভাবিক বর্ষা পেলেও মোটেই পায়নি দক্ষিণ ভারত। শুধু দক্ষিণ-পশ্চিম মরশুমি বায়ুই নয়, সম্পূর্ণ ফাঁকি দিয়েছে উত্তর-পূর্ব মরশুমি বর্ষাও। নিজেদের খরাক্লিষ্ট ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছে কেরল, কর্ণাটক, তামিলনাডু এবং পুদুচেরি।  

খরা দীর্ঘায়িত হওয়ায় শুরু হয়েছে পানীর হাহাকার। পালাক্কাড়ের পেপসিকো কারখানায় মাটির নিচের পানি তোলা কার্যত নিষিদ্ধ করেছে কেরল সরকার। খরার আক্রমণ সবচেয়ে তীব্র কেরল এমং কর্ণাটকে। দুই রাজ্যেই ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ধান, আখ এবং জোয়ার চাষ। চা, কফি, নারকেল, দারচিনি, রবারের উৎপাদনও কমেছে।  

কেরল সরকারের হিসেব, গত ১০০ বছরে এমন ভয়ঙ্কর খরা কখনও হয়নি। শুধু শস্য ক্ষতির পরিমাণই ২২৫ কোটি টাকারও বেশি। পানি নেই, পশুখাদ্য নেই, শুরু হয়েছে গরু-মোষের অভাবী বিক্রি।

এদিকে, ২০১৭ সালের মাঝামাঝি থেকে এল নিনো-র প্রভাব বেড়ে পৃথিবী-জুড়ে বর্ষা মার খাওয়ার সাবধানবাণী শুনিয়ে রেখেছে অস্ট্রেলিয়ার আবহাওয়া দপ্তর। ভারতীয় আবহাওয়া দপ্তর অবশ্য এখনও কোনও সরকারি পূর্বাভাস ঘোষণা করেনি।


মন্তব্য