kalerkantho


বাড়তি ক্ষতিপূরণ পেতে বিবাহ বিচ্ছেদের হিড়িক!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৪ মার্চ, ২০১৭ ১৭:৪৫



বাড়তি ক্ষতিপূরণ পেতে বিবাহ বিচ্ছেদের হিড়িক!

চীনের একটি গ্রামে বিবাহ বিচ্ছেদের হিড়িক পড়েছে। চীনের পূর্বের জিয়াংসু প্রদেশের নানজিং, সেখানকার একটি গ্রাম জিয়াংবেই।

এই গ্রামে ১৬০ জোড়ারও বেশি দম্পতির বাস। অধিকাংশই ডিভোর্সের আবেদন করেছেন বা ডিভোর্স নিয়েছেন বলে এক স্থানীয় সংবাদপত্র জানায়।

এর পেছনের কারণ শুনলেই বুঝবেন কেন এ ঘটনাক ঘটছে। দাম্পত্য কলহের কোনো কারণ নেই। আসলে ওই অঞ্চলে গড়ে উঠছে এক হাই-টেক জোন। ওটা বানানোর জন্য রাস্তা তৈরি করতে হবে। হাই-টেক জোনটা গড়ে তুলতে অনেকের বাড়ি-ঘর ভাঙতে হচ্ছে। অবশ্য ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন করা হবে, দেওয়া হবে ক্ষতিপূরণ। এই ক্ষতিপূরণের পরিমাণ বাড়িয়ে নিতেই ফন্দি এঁটেছেন দম্পতিরা।

একেবারে নবদম্পতি থেকে শুরু করে বয়স ৮০ পেরোনো দম্পতিরাও বিবাহ বিচ্ছেদ নিতে ছুটছেন।

গ্রামবাসীরা জানান, ক্ষতিপূরণ হিসাবে প্রতিজোড়া দম্পতির জন্য ২২০ বর্গফুট স্থান বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এখন বিচ্ছেদ নেওয়ার পর একজন ওই বাড়ি তো পাচ্ছেনই, বরং আরেকজন বাড়তি ৭০ বর্গফুটের বাড়িসহ অর্থ সহায়তা হিসাবে ১ লাখ ২১ হাজার ইউয়ান পাবেন। এই বাড়তি পাওনা নিশ্চিত করতেই বিচ্ছেদের আয়োজন।

বিচ্ছেদ নেওয়ার পরও কোনো সমস্যা নেই। প্রাপ্য বুঝে নেওয়ার পর তারা 'লিভ টুগেদার' করবেন।

৮০ পেরিয়েছে এক লোকের। তিনি ডিভোর্স নিয়ে ফেলেছেন। সংবাদমাধ্যমকে জানান, এ ঘটনা ঘটিয়ে যা পেয়েছেন তার জন্য ডিভোর্স নেওয়া সঠিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। ইতিমধ্যে দীর্ঘ সুখী দাম্পত্য জীবন তিনি কাটিয়ে ফেলেছেন।

আরেকজন জানান, স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়েছেন। কিন্তু আবার বিয়ে করতে হবে এমন কোনো কথা নেই। একসঙ্গে আগের মতোই থাকবেন দুজন। 'এ নিয়ে আমার কোনো আলাদা চিন্তা নেই। সবাই করছে তাই আমিও করেছি', বললেন তিনি।

ডিভোর্স নিয়ে অধিকাংশই 'লিভ টুগেদার' করছেন বলেও জানায় ওই সংবাদপত্র।

স্থানীয় এক বিশেষজ্ঞ জানান, কোনো সুবিধা পেতে ডিভোর্স নেওয়াটা দারুণ ঝুঁকিপূর্ণ এক কাজ। কারণ এর সঙ্গে আইন জড়িয়ে। এগুলো অনেকটা ভুয়া ডিভোর্সের মতো। ভূমি অধিগ্রহণের কারণে নানজিং এর মতো জিয়াংজিনঝু, জিয়াংনিং এবং পুকোউ-তেই একই ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে। আসলে কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে নজর দিতে হবে। বিবাহিত জীবনের দর্শন ও আইনকে যেন মানুষ এভাবে ব্যবহার না করে, তার সমাধানে পথ খুঁজতে হবে। সূত্র: এসসিএমপি

 


মন্তব্য