kalerkantho


এবার বিমান বিধ্বংসী কামান দিয়ে ৫ কর্মকর্তাকে হত্যা করলেন কিম জং উন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০১:৫৭



এবার বিমান বিধ্বংসী কামান দিয়ে ৫ কর্মকর্তাকে হত্যা করলেন কিম জং উন

বিমান বিধ্বংসী কামান দিয়ে ৫ জ্যেষ্ঠ নিরাপত্তা কর্মকর্তাকে হত্যা করেছে উত্তর কোরিয়া। দক্ষিণ কোরিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা দাবি করছে, ওই কর্মকর্তাদের প্রস্তুত করা 'মিথ্যা প্রতিবেদনে' ক্ষুব্ধ হয়ে উ. কোরিয়ার নেতা কিম জং উন তাদের হত্যার নির্দেশ দেন।
 
বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, উ. কোরিয়ার নেতার সৎ ভাই মালয়েশিয়ায় নিহত হওয়ার তদন্তের বিষয়ে দ. কোরিয়ার জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা দেশটির সংসদ সদস্যদের দেওয়া এক ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানিয়েছে। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়ায় কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে ভিএক্স রাসায়নিক দিয়ে আক্রমণে মারা যান কিম জং ন্যাম। ঘটনার তদন্ত এখনো চলছে তবে দ. কোরিয়া বলে আসছে, এই হত্যাকাণ্ডের কলকাঠি নেড়েছে উ. কোরিয়া।
 
উ. কোরিয়ার নিরাপত্তা বিভাগের প্রধান কিম উওন হংকে গত মাসে পদচ্যুত করা হয়েছিল। তার বিভাগেরই ৫ কর্মকর্তাকে মিথ্যা প্রতিবেদনের জন্য বিমান বিধ্বংসী কামান দিয়ে উড়িয়ে দেওয়া হল। দ. কোরিয়ার পার্লামেন্ট সদস্য লি জিওল উ বলেছেন, এটা ঠিকভাবে জানা যায়নি কোন মিথ্যা প্রতিবেদনে ক্ষুব্ধ হয়েছেন কিম জং উন।
 
উ. কোরিয়া গত জানুয়ারিতে দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার ও নির্যাতনের অভিযোগে প্রত্যাহার করে নেয় কিম উওন হংকে। তিনি কিম জং উনের ঘনিষ্ঠজন বলে পরিচিত ছিলেন।  

উ. কোরিয়া এখনো কিম হং কিংবা তার বিভাগের ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের বিষয়ে প্রকাশ্যে কিছু বলেনি।

২০১১ সালে কিম জং উন ক্ষমতায় আরোহণের পর থেকে বিরাটসংখ্যক জ্যেষ্ঠ সরকারি কর্মকর্তাকে হত্যা করেছেন।


মন্তব্য