kalerkantho


দেশের জন্য গুলি খেতেও প্রস্তুত গুরমহর কৌর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:১৯



দেশের জন্য গুলি খেতেও প্রস্তুত গুরমহর কৌর

দেশের জন্য প্রাণ দিতে প্রস্তুত।   দেশের জন্য যেভাবে তাঁর বাবা শহিদ হয়েছেন, তিনিও সেভাবেই দেশের জন্য জীবন দিতে প্রস্তুত।

বিতর্ক, সমালোচনার মাঝে এভাবেই সমালোচকদের কড়া জবাব দিলেন গুরমহর কৌর।

কার্গিল যুদ্ধে শহিদ জওয়ানের কন্যা গুরমহরকে সম্প্রতি ট্যুইটারে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।   ‘দেশদ্রোহী’ তকমা দিয়ে শহিদ কন্যাকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়ার অভিযোগে এরপর বিজেপির ছাত্র সংগঠনের বিরুদ্ধে কড়া সমালোচনা শুরু হয়।   বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় শুরু হলে, মুখ খোলেন গুরমহর।
তিনি বলেন, দেশের জন্য যেভাবে তাঁর বাবা প্রাণ দিয়েছিলেন, তিনিও সেই রাস্তায় হাটতে এতটুকু ভয় পান না।   প্রয়োজনে দেশের জন্য প্রাণ দিতেও পিছপা হবেন না বলেও জানিয়েছেন গুরমহর।   তবে, ছাত্র ছাত্রীদের বাক স্বাধীনতা থাকা উচিত বলে মন্তব্য করেন গুরমহর।

এবিভিপির সমালোচনা করাতেই গুরমহরকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।   এমনকী, ‘এবিভিপি-কে ডরাই না’ বলেও ফেসবুকে পোস্ট করেন গুরমহর।

এরপরই তাঁকে হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই, ‘পাকিস্তান আমার বাবাকে খুন করেনি, যুদ্ধ তাঁকে হত্যা করেছে’ বলে একটি বিতর্কিত মন্তব্য করেন গুরমহর।   ওই পোস্ট ভাইরাল হওয়ার পর ফের জবরদস্ত বিতর্ক শুরু হয়।

বিষয়টি চাউর হতেই, গুরমহরকে ওই পোস্টের বেশ কড়া করেই জবাব দেন বীরেন্দ্র সেওয়াগ। কার্গিল শহিদ ক্যাপ্টেন মনদীপ সিংয়ের মেয়েকে সেওয়াগ বলেন,  ‘জোড়া ত্রিপল সেঞ্চুরি আমি করিনি। করেছে আমার ব্যাট। ’ ওই পোস্টের মাধ্যমে সেওয়াগ কাকে নিশানা করেন, তা স্পষ্ট হতেই ফের জল্পনা শুরু হয়।

এবিভিপিকে নিশানা করায়, তাঁকে দাউদ ইব্রাহিমের সঙ্গে তুলনা করার জন্য যেমন বিতর্ক শুরু হয়েছে, তেমনি পাকিস্তান তাঁর বাবাকে খুন করেন বলাতেও জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে। আর তার প্রেক্ষিতেই এবার গুরমহর মাঠে নামলেন বলেই মনে করছে বিভিন্ন মহল।


মন্তব্য