kalerkantho


ট্রাম্পের ভাষণে আমন্ত্রণ পেলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্যবসায়ী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:৫১



ট্রাম্পের ভাষণে আমন্ত্রণ পেলেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্যবসায়ী

আগামী সপ্তাহেই প্রথমবারের মতো কংগ্রেসে ভাষণ দেবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই ভাষণ শোনার আমন্ত্রণ পেয়েছেন নিউ ইয়র্কের কুইন্সে মুসলিম-বিদ্বেষের শিকার হওয়া এক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিনি।

২০১৫ সালে নিউ ইয়র্কে মুসলিম বিদ্বেষের শিকার হন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্যবসায়ী সরকার হক। মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টিটিভের প্রভাবশালী ডেমোক্র্যাট নেতা জো ক্রাউলি সে সময় নিউ ইয়র্কে গিয়ে সরকার হকের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়েছিলেন। ইসলাম ও মার্কিন মুসলিম সম্প্রদায়কে জঙ্গিবাদের জন্য দায়ী করায় ট্রাম্পের ব্যাপক সমালোচনা করেন তিনি। বলেন, তিনি নির্বাচনি প্রচারণার শুরু থেকেই উসকানিমূলক ইসলাম বিদ্বেষী বক্তব্য দিয়ে আসছেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশি ব্যবসায়ী সরকার হক তিন দশক ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন। বাংলাদেশি অধ্যুষিত কুইন্সের এস্টোরিয়ার টোয়েন্টি ফার্স্ট এভিনিউর ফাতিমা ফুড মার্টের মালিক তিনি। ৫৩ বছর বয়সী সরকার হককে দিনের বেলায় তার দোকানে ঢুকে আক্রমণ করে পিরো কোলভানি নামের এক শ্বেতাঙ্গ। তখন হামলাকারীরা আই কীল মুসলিমস বলে চিৎকার দিতে থাকে। এক লাতিন ব্যক্তির উপস্থিতিতে সরকার হক প্রাণে বেঁচে যান।

ওই ঘটনার পরপরই পুলিশ হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করে এবং তার বিরুদ্ধে বিদ্বেষমূলক অপরাধের মামলা দায়ের করা হয়। এবার ক্রাউলির সৌজন্যে মার্কিন কংগ্রেসেও আমন্ত্রণ পেলেন সরকার হক।

হামলার পরপরই ক্রাউলি সাত মুসলিম-প্রধান দেশের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞাকেও তার উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ডের অংশ বলে অভিযোগ করেন। তিনি আরও বলেন, আগামী সপ্তাহে কংগ্রেসে ট্রাম্পের ভাষণের সময় সরকার হক হবেন আমার অতিথি। আর এজন্য আমি গর্বিত বোধ করছি। মুসলিম বিদ্বেষের শিকার ওই ব্যক্তি এক উন্নত জীবনের খোঁজে এ দেশে এসেছেন। এখন তার নিজের একটি ব্যবসা রয়েছে।


মন্তব্য