kalerkantho


হাসপাতাল চত্বর থেকে শিশুর দেহ টেনে আনল কুকুর

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৮:৪৪



হাসপাতাল চত্বর থেকে শিশুর দেহ টেনে আনল কুকুর

লোকভর্তি হাসপাতাল চত্বর থেকে সদ্যোজাতর দেহ বাইরে টেনে নিয়ে এল কুকুর। তারপর সদ্যোজাতর দেহ উদ্ধার হল ডাস্টবিনের স্তূপ থেকে।

ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে। স্থানীয় বাসিন্দাদের তৎপরতায় মৃত শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানিয়েছেন, আজ সকালে তাঁরা দেখেন, রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালের পিছনের গেট দিয়ে একটি কুকুর মুখে করে মাংসপিণ্ড জাতীয় কিছু নিয়ে পালাচ্ছে। কিন্তু, ভুল ভাঙে কিছুক্ষণ পরে। কাছে গিয়ে তাঁরা দেখেন, মাংসপিণ্ড নয়। আসলে তা সদ্যোজাতের দেহ। শিউরে ওঠেন তাঁরা। আর দাঁড়িয়ে থাকেননি স্থানীয়রা। তৎক্ষণাৎ কুকুরটিকে ধাওয়া করেন।

মুখে বাচ্চা নিয়ে দৌড়তে শুরু করে কুকুরটি। তারপর হাসপাতাল সংলগ্ন ইন্দিরা কলোনির কাছে ডাস্টবিনে সদ্যোজাতকে ফেলে দেয়। স্থানীয়রা সদ্যোজাতের মৃতদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। দেখা যায়, তার বাম হাত থেকে রক্ত পড়ছে। ক্ষতচিহ্ন গভীর। কুকুরে খুবলে দিয়েছে অনেকখানি।   

এলাকার বাসিন্দা তুষারকান্তি গুহ বলেন, জেলা হাসপাতাল চত্বর থেকে সদ্যোজাতের দেহ নিয়ে পালানোর ঘটনা এই প্রথম নয়। এর আগেও এরকম ঘটনা ঘটেছে। বারবার এই ঘটনা কীভাবে ঘটছে? এই ব্যাপারে হাসপাতালের আরও সতর্ক থাকা উচিত। আর কোথা থেকে এল এই সদ্যোজাতের দেহটি? আমরা ঘটনার তদন্তের দাবি করছি।

হাসপাতাল সূত্রে খবর, মৃতদেহটি হাসপাতাল চত্বরের কোনও আবর্জনা স্তূপে পড়েছিল। কুকুরটি সেখান থেকে দেহ নিয়ে আসে। কিন্তু সদ্যোজাতর পরিচয় জানা যায়নি। একজন মৃত সদ্যোজাতের দেহ হাসপাতালের চত্বরের ভিতর কোথা থেকে এল তাও পরিষ্কার নয়।    

হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান কেয়া চৌধুরী বলেন, গোটা ঘটনা আমরা তদন্ত করে দেখছি। সদ্যোজাতর দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।


মন্তব্য