kalerkantho


দুবাইয়ে মেয়ে শিশুকে নির্যাতন, কাঠগড়ার পাকিস্তানি তরুণ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:৪৩



দুবাইয়ে মেয়ে শিশুকে নির্যাতন, কাঠগড়ার পাকিস্তানি তরুণ

দুবাইয়ের এক আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়িয়েছেন এক তরুণ। তিনি বাড়ি বদলানোর জন্য সহায়তা প্রদানকারী একটি প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করতেন। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগে বলা হয়েছে, ৮ বছর বয়সী এক শিশু কন্যাকে শারীরিকভাবে উত্যক্ত করেছেন তিনি।

২৩ বছর বয়সী ওই পাকিস্তানি তরুণ পেশাগত কাজে গিয়েছিলেন ওই বাড়িতে। সেখানে শিশুটি একাকী একটি ঘরে খেলছিল। ওই কক্ষে কোনো মানুষ না থাকার সুযোগ নেয়  তরুণ। শিশুটির ঠোঁটে চুমু খান তিনি। এতে ভয় পেয়ে যায় এবং মায়ের কাছে দৌড়ে চলে যায় ছোট্ট শিশু।

এদিকে, নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন তরুণ। আগামী শুনানির আগে তার আইনজীবী এই মামলার ফাইলের একটি কপি দেওয়ার অনুরোধ করেছেন। অভিযুক্তকে আটক রাখতে বলা হয়েছে।

আগামী শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে ১৩ মার্চ।

শিশুর মা জানান, বাড়ি বদলাচ্ছিলেন তিনি। ঘরের জিনিসপত্র নেওয়ার জন্য ওই কম্পানি থেকে লোক ভাড়া করেছিলেন। সবাই যখন বাড়ির বদলানোর কাজে ব্যস্ত ছিলেন, তখন হঠাৎ করেই তার বাচ্চাটি কাঁদতে কাঁদতে দৌড়ে চলে আসে।

'আমার বাচ্চাটি কাঁদছিল এবং তার চোখে ভয় ছিল। জানালো যে সে ওই কক্ষে খেলছিল। হঠাৎ সেখানে একজন কর্মী তার কাছে চলে যায় এবং তার ঠোঁটে চুমু খেতে থাকে। তার ভয় লাগে এবং দৌড়ে পালিয়ে আসে', জানান ৩৬ বছর বয়সী অস্ট্রিয়ান শিক্ষিকা মা।

ঘটনা ঘটে গত বছর। ডিসেম্বরের ১৭ তারিখ দুবাইয়ের আল বারশা পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করা হয়। সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশকে জানান এ কথা। একই দিনে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদ এবং পাবলিক প্রসিকিউশনের তদন্তের মুখে এ ঘটনার কথা স্বীকার করেন তরুণ।

শিশুর পরিচয়পত্র দেখে জানা যায়, তার জন্ম ২০০৮ সালের জুনে।

এখন পরবর্তি শুনানির অপেক্ষায় আটক অবস্থায় রয়েছেন অভিযুক্ত তরুণ। সূত্র: খালিজ টাইমস

 


মন্তব্য