kalerkantho


পাক সেনাপ্রধানের হুঁশিয়ারি

মাজারে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০২:৪৫



মাজারে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে

পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের একটি মাজারে আত্মঘাতী হামলায় প্রায় ৭২ ব্যক্তি নিহত হওয়ার ঘটনার পর এ হামলার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করতে অভিযানে নামছে দেশটির সেনাবাহিনী। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া। এ ঘটনার নেপথ্যের কুশীলবদের খুঁজে বের করে প্রতিশোধের মাধ্যমে এই আক্রমণের জবাব দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। সিন্ধু প্রদেশের শেহওয়ান এলাকার লাল শাহবাজ কালান্দার মাজারে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই হামলার ঘটনা ঘটে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে দেওয়া সংক্ষিপ্ত বার্তায় পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আসিফ গফুর দাবি করেছেন, আফগানিস্তানে আশ্রয় নেওয়া শত্রুপক্ষের নির্দেশে এই সন্ত্রাসী হামলা কার্যকর করা হয়েছে। আমরা তাদের প্রতিহত করে উপযুক্ত জবাব দেবো। তিনি আরও বলেন, জাতির প্রতিটি রক্তবিন্দুর প্রতিশোধ নেওয়া হবে অবিলম্বে। কেউ কোনও ছাড় পাবে না। উত্তেজনাকর এ পরিস্থিতিতে পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া পাকিস্তানের জনগণকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, দেশের নিরাপত্তা বাহিনী কোনোভাবেই শত্রুপক্ষকে সফল হওয়ার সুযোগ দিতে পারে না। আমরা জাতির কল্যাণে নিয়োজিত থাকবো।

এদিকে মাজারে হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ। তিনি মনে করেন, লাল শাহবাজ কালান্দার মাজারে হামলা পাকিস্তানের উন্নয়নের গতির ওপর আঘাত। ইসলামাবাদে দেওয়া তার সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সুফি অন্তঃপ্রাণ মানুষগুলো পাকিস্তানের প্রাচীন ইতিহাসের অংশ। দেশের অনেক সংগ্রামে তাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। এই মানুষগুলোর ওপর হামলা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর গড়া পাকিস্তানের প্রতি সরাসরি হুমকি। তাদের অবশ্যই মোকাবিলা করা হবে। সিন্ধু প্রদেশের গভর্নর মোহাম্মদ জুবায়ের তার সংহতি বার্তায় বলেছেন, সিন্ধু হলো সুফিবাদীদের পূণ্যভূমি। নিজেদের পৈশাচিক স্বার্থ সফল করার জন্য সন্ত্রাসীরা এবার সুফি ভক্তদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করেছে। এই বোমা হামলা গোটা জাতি ওপর আক্রমণের সমান।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় করাচির ২০০ কিলোমিটার উত্তরে লাল শাহবাজ কালান্দার মাজারে আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্তত ৭২ জনের প্রাণহানি ও অসংখ্য মানুষ আহত হয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে পাক সংবাদমাধ্যম ডন। তবে ভারতের সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার দাবি, নিহতের সংখ্যা প্রায় ১০০। গত চারদিনে এ নিয়ে চারটি জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটলো পাকিস্তানের বিভিন্ন স্থানে।


মন্তব্য