kalerkantho


নগ্ন করে ছাত্রীকে বেধড়ক মার হোস্টেল সুপারের!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:১৬



নগ্ন করে ছাত্রীকে বেধড়ক মার হোস্টেল সুপারের!

জ্বর অবস্থায় হাসপাতালে যেতে রাজি হয়নি। স্কুলছাত্রীকে বাথরুমে নিয়ে গিয়ে নগ্ন করে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল হোস্টেল সুপারের বিরুদ্ধে।

গুরুতর অবস্থায় ক্লাস সেভেনের ওই ছাত্রীকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে তার পরিবার। জ্বরের ঘোরে তার একটাই দাবি স্কুলে আর যাবে না। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের পানাগড় এলাকার বুদবুদের মামুন ন্যাশনাল স্কুল হোস্টেলে। অভিযুক্ত হোস্টেল সুপারের কড়া শাস্তি চেয়ে পানাগড় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ছাত্রীর বাবা।
ক্লাস সিক্স থেকেই বুদবুদ ন্যাশনাল আবাসিক স্কুলে থেকে পড়াশোনা করছে সেরিনা খাতুন (ছদ্ম নাম)। তার বাড়ি মুর্শিদাবাদের জলঙ্গির ধনিরামপুরে। বুধবার রাতে জ্বরের ঘোরে ভুল বকছিল সেরিনা। সেইসময় শিক্ষিকারা তাকে হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেন। সে রাজি হয়নি।
অভিযোগ, রাত ৯টা নাগাদ হোস্টেলের সুপার রাজিয়া রহমান এসে তাকে জোর করে বাথরুমে নিয়ে যান। বাথরুমে নিয়ে গিয়ে নগ্ন করে বেধড়ক মারধর করেন। এমনকী, ওই রাতেই তার গায়ে পানি ঢেলে দেওয়া হয়। এর জেরে অজ্ঞান হয়ে পড়ে ওই ছাত্রী। বৃহস্পতিবার সকালে তার বাড়িতে খবর দেয়। টানা দু’দিন হোস্টেলের ঘরের বিছানায় পড়ে ছিল সে। গতকাল পরিবারের লোকজন তাকে এনে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন।
আতঙ্কে ফের স্কুলে ফিরে যেতে আপত্তি জানিয়েছে ওই ছাত্রী। সাফ দাবি, “আমি আর ওখানে ফিরতে চাই না”
হোস্টেলে ফিরে গেলে মেয়ের প্রাণ সংশয়ের সম্ভাবনা রয়েছে বলে মনে করছেন অভিভাবকরা। এই ঘটনায় হোস্টেল সুপারের শাস্তির দাবি করেছেন ছাত্রীর মা। ইতিমধ্যেই পানাগড় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ছাত্রীর বাবা।


মন্তব্য