kalerkantho


ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রশ্নে ফেডারেল আদালতে ফের হোঁচট খেলেন ট্রাম্প

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২২:১১



ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রশ্নে ফেডারেল আদালতে ফের হোঁচট খেলেন ট্রাম্প

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা প্রশ্নে ফের ফেডারেল আদালতে হোঁচট খেলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সানফ্রান্সিসকোর ফেডারেল আদালত সর্বসম্মতিক্রমে ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের বিপক্ষে রায় দিয়েছেন। নির্বাহী আদেশে সাতটি মুসলিম দেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

নিম্ন আদালতে নির্বাহী আদেশের কার্যকারিতা সাময়িক স্থগিত করা হলে ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে উচ্চ আদালতে আপিল করা হয়। স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার সানফ্রান্সিসকোর ফেডারেল সার্কিট আদালতের তিনজন বিচারক নিম্ন আদালতের রায় বহাল রেখেছেন।

আদালতের এমন রায়ের ফলে ইরান, ইরাক, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান, সিরিয়া ও ইয়েমেনের নাগরিকরা ভিসা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে আর বাধা রইলো না। রায়ে প্রতিক্রিয়ায় ট্রাম্প তাৎক্ষণিক টুইট বার্তায় বলেন, আদালতে আবারো দেখা হবে।  

ট্রাম্প প্রশাসনের পক্ষ থেকে তার নির্বাহী আদেশের কার্যকারিতা পুনর্বহালের জন্য সুপ্রিম কোর্টে যাওয়া হবে বলে মনে করা হচ্ছে। বিষয়টির আইনি লড়াইয়ের এখনই ইতি ঘটছে বলে মনে করা হচ্ছে না।

ফেডারেল সার্কিট আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, সরকার পক্ষ নির্বাহী আদেশটি জরুরিভাবে কার্যকর করার কোনো অপরিহার্যতা আদালতে প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। এ ধরনের স্পর্শকাতর মামলায় আমেরিকার আদালতে বিভক্ত রায় হওয়ার নজির থাকলেও ফেডারেল সার্কিট আদালতের তিনজন বিচারক সর্বসম্মতিক্রমে রায় প্রদান করেন।

এ রায় ট্রাম্প প্রশাসনের জন্য তাৎক্ষণিক পরাজয় বলে মনে করা হচ্ছে।

টুইট বার্তায় ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, আদালতে আবার দেখা হবে। দেশের নিরাপত্তা হুমকির সম্মুখীন। এতে করে খুব দ্রুত প্রশাসন ফেডারেল আদালতে যাবে বলে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।

এদিকে ওয়াশিংটন রাজ্যের গভর্নর ডেমোক্রেট জে ইন্সলি তার জবাবে বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট আপনাকে আমরা আদালতে এর মধ্যেই দেখেছি এবং আমরা আপনাকে আদালতে পরাজিত করতে পেরেছি। ’ 

ওয়াশিংটন রাজ্যের গভর্নর অন্য কয়েকটি রাজ্য গভর্নরের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে আইনি লড়াই করছেন। আমেরিকার সিভিল লিবার্টি ইউনিয়নসহ নাগরিক অধিকার আন্দোলনের গ্রুপগুলো ব্যাপকভাবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।


মন্তব্য