kalerkantho


ঘরে ঢুকে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে খুন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০১:০০



ঘরে ঢুকে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে খুন

সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সোনারপুরের লস্করপুর লেনিন নগরে।

মৃতের নাম প্রীতি বসাক। গতকাল রাতে দর্মার ঘরে পড়াশোনা করছিল প্রীতি। সোমবার সকালে তার বিবস্ত্র মৃতদেহ উদ্ধার হয়। জানা গেছে, প্রীতির যখন দু’বছর বয়স তখন তার মা মঞ্জু বসাক মারা যান। দিদিমা পারুল সর্দারের কাছেই থাকত প্রীতি। তার বাবা শিবমবাবুর একটি মিষ্টির দোকান রয়েছে লস্করপুরে।

সম্প্রতি স্থানীয় তাপস দাস নামে এক যুবকের সঙ্গে পরিচয় হয় প্রীতির। শিবমবাবুর দোকানের পাশেই থাকেন তাপস। পুলিশের অনুমান তাপস এই খুনের ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে থাকতে পারে।

তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে তাপস কিছুদিন আগে প্রীতির বাড়ি গিয়েছিল। যেহেতু দরমার দেওয়াল এবং মাটির সংযোগস্থলে সিধ কেটে ওই দরমার ঘরে দুষ্কৃতিরা ঢুকেছিল তাই সন্দেহ করা হচ্ছে চেনা কোনো লোকের কাজই হবে।

প্রীতির দিদিমা পারুলদেবী জানিয়েছেন, যে তাঁর ঘরের লাগোয়া একটি দরমার ঘরে প্রীতি রোজ রাতে পড়াশোনা করত। সামনেই মাধ্যমিক পরীক্ষা ছিল তার। রোববার রাত ১২টা নাগাদ তিনি যখন উঠেছিলেন তখনও দেখেছেন নাতনি পড়াশোনা করছে। এর পরেই সকালবেলা আশপাশের লোকজন দেখেন দরমার দেওয়ালের নিচের দিকে অনেকটা গর্ত করা রয়েছে।

ভেতরে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছে প্রীতি। ভারি কিছু দিয়ে তার মাথা থেঁতলে দেয়া হয়েছে। তার সাইকেলটা চাপা রয়েছে তার দেহের ওপর। সাইকেলটির সিট পাওয়া যায়নি। পুলিশ জানিয়েছে প্রীতির মোবাইল ফোনটিও পাওয়া যাচ্ছে না। এই ব্যাপারে তাপসকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানার চেষ্টা চলছে।

সূত্র: আজকাল


মন্তব্য