kalerkantho

26th march banner

পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০১:৪৮



পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন

স্ত্রীর সঙ্গে একাধিক পুরুষের শারীরিক সম্পর্ক মানতে পারেননি সিরাজুল মোল্লা৷ আর তার প্রতিবাদ করতে গিয়েই খুন হলেন উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার তারাগুনিয়া গ্রামের এই ব্যক্তি।

স্থানীয় বাসিন্দা ও মৃতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার রাতেই সাকিনা বিবি নামে ওই বধূকে গ্রেপ্তার করেছে বাদুড়িয়া থানার পুলিশ। পুলিশের জেরার মুখে পরে সাকিনা তার দোষ স্বীকার করেন৷ এই খুনের ঘটনার কিনারা করতে ধৃত সাকিনা বিবিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে বসিরহাট মহকুমা আদালতে তোলা হয়৷ তাঁকে চোদ্দ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেয়া হয়।

ঘটনার সূত্রপাত হয় গত সোমবার থেকে। পেশায় ট্রাকের খালাসি সিরাজুল মোল্লা৷ তাঁর স্ত্রী সাকিনা বিবির সঙ্গে একাধিক লোকের শারীরিক সম্পর্ক নিয়ে অশান্তি শুরু হয় তাদের মধ্যে। এর পর মঙ্গলবার সকালে ওই গ্রামের একটি পার্কে সিরাজুলের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে বাদুড়িয়া থানার পুলিশ ।

ঘটনার তদন্ত শুরু করে পুলিশ। মৃতের মা রাবেয়া বিবির অভিযোগ, ‘আমার বৌমার সঙ্গে একাধিক লোকের শারীরিক সম্পর্ক ছিল। প্রায়ই কিছু বাইরের অচেনা লোকের সঙ্গে রাত্রি যাপন করতো সে। নিষেধ করতে গেলে আমাদের বিরূদ্ধে বধূ নির্যাতনের মামলা করবে বলে হুমকি দিত। এ নিয়ে বহুবার অশান্তি ও হয়েছে। গ্রামে সালিশি সভা করেও বৌমার মধ্যে কোন পরিবর্তন দেখা যায়নি। সিরাজুল এসব মানতে পারতো না বলেই সিরাজুলের স্ত্রী লোক লাগিয়ে সিরাজুলকে খুন করেছে৷’ এদিন সকালে মৃতের বাড়িতে পুলিশ গেলে অভিযুক্ত নারীকে কঠিন শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে।

তবে এই খুনের পেছনে সাকিনা বিবি ছাড়া আর কে কে যুক্ত আছে, এবং এই খুনের পেছনে বাকি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করতে পুরো এলাকা জুড়ে চিরুনি তল্লাশি করছে বাদুড়িয়া থানার পুলিশ।

সূত্র: কলকাতা


মন্তব্য