kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইথিওপিয়ায় জরুরি অবস্থা, দেড় হাজার মানুষ গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ অক্টোবর, ২০১৬ ১৪:১০



ইথিওপিয়ায় জরুরি অবস্থা, দেড় হাজার মানুষ গ্রেপ্তার

ইথিওপিয়ায় কয়েকমাস ধরে সরকার বিরোধীদের বিক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে জারি করা জরুরি অবস্থায় ১,৬০০ জনেরও বেশি ব‌্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিবিসি বলছে, দেশটির একজন মন্ত্রী এই তথ‌্য জানিয়েছেন।


গ্রেপ্তার হওয়া ব‌্যক্তিরা দেশটির ওরোমিয়া ও আমহারার অঞ্চলের মানুষ বলে জানা গেছে। ওই দুটি অঞ্চলের মানুষেরা কয়েক মাস ধরে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে আসছে।
কয়েকমাস ধরে সরকারবিরোধী বিক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি ইথিওপিয়াজুড়ে ছয় মাসের জরুরি অবস্থা জারি করা হয়।
রয়টার্স দেশটির রাষ্ট্রীয় এফবিসি ওয়েবসাইট জানিয়েছে, পাঁচটি এলাকা থেকে ১,৬৮৩ ব‌্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরমধ‌্যে রাজধানী আদ্দিস আবাবার ১৫৫ মাইল দক্ষিণের শাশামেনেও রয়েছে। সেখান থেকে ৪৫০জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
ওয়েবসাইটটিতে বলা হয়, গ্রেপ্তার হওয়াদের অধিকাংশই সাম্প্রতিক সংঘর্ষ-সহিংসতায় জড়িত সন্দেহভাজন। পাশাপাশি, লুট হয়ে যাওয়া উল্লেখযোগ‌্য সংখ‌্যক অস্ত্রও উদ্ধার করা হয়েছে।
বেশ কয়েকজন ব‌্যবসায়ীকে তাদের দোকান বন্ধ রাখার জন‌্য এবং তিনজন শিক্ষককে স্কুল ফেলে যাওয়ার জন‌্যও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।   তবে গ্রেপ্তার হওয়াদের কোথায় রাখা হয়েছে তা উল্লেখ করা হয়নি।
অধিকার গোষ্ঠীগুলো বলছে, গেল ১১ মাসে সরকার-বিরোধী বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে দেশটিতে অন্ততপক্ষে ৫০০ ব‌্যক্তি নিহত হয়েছেন।
এরআগে, টেলিভশনে দেওয়া এক ভাষণে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হাইলেমারিয়াম দেসালেগন জরুরি অবস্থা জারির ঘোষণা দেন।
প্রধানমন্ত্রীর ভাষ‌্য, “আমাদের কাছে নাগরিকদের নিরাপত্তা সবার আগে। এর বাইরে অবকাঠামো প্রকল্প, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্বাস্থ্যকেন্দ্র, প্রশাসন এবং আদালত ভবনগুলোকে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার হাত থেকে আমরা রক্ষা করতে চাই। ”
দেশটির বৃহত্তম দুইটি জাতিগোষ্ঠী ওরোমিয়া ও আমহারার মানুষেরা কয়েক মাস ধরে সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে আসছে।
তাদের অভিযোগ টিগরেয়ান জাতিগোষ্ঠীর অল্পকিছু অভিজাত মানুষ ইথিওপিয়ার ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রেখেছে।


মন্তব্য