kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


হিলারিকে নোংরা মহিলা বললেন ট্রাম্প

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ অক্টোবর, ২০১৬ ১৩:৩৯



হিলারিকে নোংরা মহিলা বললেন ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের তৃতীয় ও সর্বশেষ প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কেও পরস্পরকে পাল্টাপাল্টি আক্রমণ করেছেন হিলারি ক্লিনটন ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। বিতর্কে হিলারি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

কারণ ট্রাম্প তার একজন পুতুল মাত্র। বিপরীতে হিলারি ক্লিনটনকে  একজন নোংরা মহিলা বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প। পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী, বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় রাত ৯টায় নেভেদা অঙ্গরাজ্যের লাস ভেগাসের নেভেদা বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বিতর্ক শুরু হয়। ৯০ মিনিটের বিতর্কে সঞ্চালকের ভূমিকায় আছেন ফক্স নিউজ চ্যানেলের ক্রিস ওয়ালেস। দুই প্রার্থী নিজেদের নীতিগত অবস্থান থেকেই সম্ভাব্য মার্কিন প্রেসিডেন্টের নীতিগত অবস্থান নিজ দেশের সামনে তুলে ধরছেন।

বিতর্কে নারী ও এলজিবিটি সম্প্রদায়ের অধিকারের পক্ষে নিজের অবস্থানের কথা জানান হিলারি ক্লিনটন। নাগরিকদের অস্ত্র রাখার অধিকারের পক্ষে নিজের অঙ্গীকারের কথা জানান ডোনাল্ড ট্রাম্প। এছাড়া তিনি নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রে গর্ভপাতকে বৈধ করার যে রুলিং রয়েছে সেটি পরিবর্তনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

প্রথম বিতর্কের মতোই ট্রাম্পকে মোকাবিলার জন্য হিলারি জোরালো প্রস্তুতি অব্যাহত রাখলেও রিপাবলিকান প্রার্থী বিভিন্ন সমাবেশে ভোটারদের সঙ্গেই বেশি সময় কাটিয়েছেন। আগের দুটি বিতর্কের পর জরিপ অনুযায়ী ট্রাম্পকে পেছনে ফেলে এগিয়ে ছিলেন হিলারি। তৃতীয় বিতর্কপূর্ব জরিপের ফলাফলেও ট্রাম্পের তুলনায় এগিয়ে আছেন হিলারি ক্লিনটন।

বিতর্ক শুরুর আগে মার্কিন নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বিতর্কে দুই প্রার্থী সঞ্চালক ওয়ালেসের পক্ষ থেকে উত্থাপিত ঋণ ও অধিকার বিষয়ক ইস্যু (এনটাইটেলমেন্ট), অভিবাসন, অর্থনীতি, সুপ্রিম কোর্ট, বৈদেশিক বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু ছাড়াও একজন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে নিজেদের শারীরিক সক্ষমতা- এ ছয়টি পরীক্ষামূলক বিষয়ের প্রশ্ন ও তার উত্তর দেবেন। এর আগে ৯ অক্টোবর ২০১৬ রবিবার দ্বিতীয় দফায় প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কে মুখোমুখি হন হিলারি ক্লিনটন ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। এদিন পররাষ্ট্রনীতি উপস্থাপনের চেয়ে একে অপরকে ব্যক্তিগত আক্রমণ করেই কথা বেশি বলেছেন তারা।

 


মন্তব্য