kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আইএস-এর কবল থেকে ইরাকের মসুল পুনরুদ্ধারে অভিযান শুরু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ অক্টোবর, ২০১৬ ২২:০৪



আইএস-এর কবল থেকে ইরাকের মসুল পুনরুদ্ধারে অভিযান শুরু

 ইসলামিক স্টেট (আইএস)-এর কবল থেকে তাদের দখলকৃত সর্বশেষ ঘাঁটি মসুল নগরী পুনর্দখলে ইরাকি বাহিনী অভিযান শুরু করেছে।
সোমবার ভোরে নগরীর আইএস অবস্থান লক্ষ্য করে গোলা বর্ষণ শুরু হয়।

দীর্ঘ প্রতীক্ষিত এই অভিযানে কুর্দি পেশমের্গা, ইরাক সরকার ও তাদের মিত্র বাহিনী অংশ নিয়েছে।
সরকারি বাহিনীর ট্যাঙ্কগুলো নগরীর অভিমুখে অগ্রসর হচ্ছে।
২০১৪ সাল থেকে আইএস মসুল দখল করে রেখেছে।
এদিকে জাতিসংঘ ওই এলাকায় বসবাসরত ১৫ লাখ বেসামরিক লোকের নিরাপত্তার ব্যাপারে ‘গভীর উদ্বেগ’ প্রকাশ করেছে।
একজন কুর্দি জেনারেল বলেন, ‘আমি যদি আজ মরেও যাই, তবে সন্তুষ্ট চিত্তে মারা যাব। কারণ আমি আমার মানুষের জন্য কিছু করতে পেরেছি। ’
কর্মকর্তারা বলেন, ইরাকি বাহিনী যদি এই নগরীটি আইএস এর হাত থেকে পুনরুদ্ধার করতে পারে তবে তা হবে জিহাদি সংগঠনটির জন্য একটি বড় ধরনের পরাজয়।
প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল-আবাদি টেলিভিশনের এক ভাষণে স্থানীয় সময় সোমবার ভোরে এই অভিযান শুরুর কথা ঘোষণা করেন।
তিনি বলেন, ‘আমাদের বিজয়ের সময় এসে গেছে। ’
আবাদি আরো বলেন, ‘আজ আমি দায়েশের (আইএস) কবল থেকে আপনাদের মুক্তির জন্য বীরোচিত অভিযান শুরুর ঘোষণা দিচ্ছি। ’
তিনি আরো বলেন, ‘সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছায় স্বাধীনতা উদ্যাপন এবং আইএস এর দাসত্ব থেকে আপনাদের মুক্ত করার উৎসবে আমরা মসুলে মিলিত হব। আমরা একসঙ্গে ডায়েশকে পরাজিত করব যাতে করে মসুলে আবার সকল ধর্মের মানুষ একসঙ্গে বাস করতে পারে। আমাদের প্রিয় নগরী মসুলের পুনর্গঠনের লক্ষ্যে আমরা তাদের পরাজিত করব। ’
শুধু সরকারি বাহিনীর সদস্যরা সুন্নি প্রধান মসুলে ঢুকবে বলে তিনি অঙ্গীকার করেন।
বিশ্লেষকরা আশংকা করেন, এই পদক্ষেপের ফলে অভিযানটি একটি জাতিগত সহিংসতায় রূপ নিতে পারে।


মন্তব্য