kalerkantho


ভয়াবহ এগজিমার বিভীষিকা থেকে এই শিশুকে বাঁচাল চীনা দাওয়াই

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০৪:০২



ভয়াবহ এগজিমার বিভীষিকা থেকে এই শিশুকে বাঁচাল চীনা দাওয়াই

জন্মের মাত্র ৬ সপ্তাহ থেকেই ভয়াবহ এগজিমায় আক্রান্ত ছিল ছোট্ট ওয়েন রিচার্ডস। বীভত্স সেই এগজিমার ভাইরাস যেন তার সারা শরীরের মাংস খুবলে খেত। দগদগে ক্ষতে অস্থির ছেলেটি ছোটবেলা থেকেই ভালো করে হাঁটতে-চলতেও পারত না। ছেলের যন্ত্রণায় প্রতিটা দিন অভিশপ্তভাবে কাটত মার্কিন এই পরিবারের।

নানারকমভাবে ছেলের চিকিত্‍সার ব্যবস্থা করেছিলেন তার বাবা-মা ক্যাথ ও অ্যান্ড্রু রিচার্ডস। কিন্তু ওয়েনের অবস্থা দিন দিন আরও খারাপ হতে থাকে। এভাবে চলতে থাকলে বরাবরের মতো অন্ধ হয়ে যেতে পারে সে, এমনকি ভাইরাস তার মস্তিষ্কে পৌঁছলে জীবনহানিও হতে পারে বলে সাবধান করেন চিকিত্‍সকরা। ওয়েনের গায়ের ত্বক এতটাই দগদগে হয়েছিল যে সামান্য একটু জড়িয়ে ধরলেও যন্ত্রণায় কেঁদে উঠত ছেলেটি। জামাকাপড় পরা, বিছানায় শোওয়ার মতো প্রতিদিনের কোনো কাজই অসহ্য যন্ত্রণা না পেয়ে সে করতে পারত না।

এভাবে বছরের পর বছর কাটে। এর মধ্যেই একদিন ম্যানচেস্টারের বাসিন্দা শুলান ট্যাঙ নামে এক চীনা আর্য়ুবেদিক চিকিত্সকের খোঁজ পান ওয়েনের মা। নানারকম চীনা হার্ব দিয়ে তৈরি একটি মিশ্রণ দিনে দু-বার করে ওয়েনকে খেতে দেন ট্যাঙ। ওয়েনের প্রয়োজন মত এই মিশ্রণের উপকরণের পরিমাণের হেরফের হতে থাকে। মাত্র চার মাসেই আশ্চর্য ফল দেখা যায়। এখন প্রায় সুস্থ হয়ে উঠেছে ছোট ছেলেটি। হেসে-খেলে তার বয়সী আর পাঁচটা বাচ্চার মতোই জীবন কাটছে তার। স্কুলেও ভর্তি হয়েছে। জীবনের শুরুতেই সেই অভিশপ্ত দিনগুলো পেছনে ফেলে এসেছে সে।

সূত্র: এই সময়


মন্তব্য