kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিবিসি বাংলার খবর

কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাথে ৫০ ঘণ্টার বন্দুকযুদ্ধ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৫:৩১



কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাথে ৫০ ঘণ্টার বন্দুকযুদ্ধ

ভারত শাসিত কাশ্মীরের পাম্পোরে সোমবার সকাল থেকে শুরু হওয়া এক সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত একজন 'জঙ্গি' মারা গেছেন বলে দাবি করেছে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী। প্রায় ৫০ ঘণ্টা ধরে বন্দুকযুদ্ধের পর কিছুক্ষণ আগে ওই ভবনটিতে নিরাপত্তা বাহিনী প্রবেশ করেছে।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই যদিও বলছে যে একজন 'জঙ্গি'র মৃত্যু হয়েছে, ভারতীয় টিভি চ্যানেল এনডিটিভি সেনাবাহিনীকে উদ্ধৃত করে জানাচ্ছে একজন 'জঙ্গি' গতকাল এবং অন্যজন আজ সকালে, অর্থাৎ সব মিলিয়ে দুজন জঙ্গি গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন।
এই সংঘর্ষে একজন সেনা সদস্যও আহত হয়েছেন।

জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের রাজধানী শ্রীনগর থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে পাম্পোরের একটি সরকারি শিক্ষাকেন্দ্রে ওই সশস্ত্র 'জঙ্গিরা' ঢুকে পরে সোমবার ভোরে।
কেন্দ্রীয় আধাসামরিক আর সেনাবাহিনীর বিশেষ ফোর্স সাততলা ওই বাড়িটি তখনই ঘিরে ফেলেছিল।

৫০টিরও বেশি রকেট, প্রচুর গ্রেনেড আর মেশিনগানের গুলি চালাতে হয়েছে সেনাবাহিনীকে। স্থানীয় সংবাদদাতারা বলছেন, বুধবার সকালে ঘটনাস্থলের ১০ কিলোমিটার দূর থেকেও গুলি আর গ্রেনেড বিস্ফোরণের আওয়াজ পাওয়া গেছে।

রাজ্যের পুলিশ মহানির্দেশক (সমন্বয়) এস পি ভৈদ হিন্দুস্তান টাইমসকে জানিয়েছেন, "এখন আর ভবনটি থেকে গুলি আসছে না। বাহিনীর সদস্যরা ভেতরে প্রবেশ করেছেন, প্রতিটি ঘর খুঁজে দেখা হচ্ছে। "

এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিতেই গত ফেব্রুয়ারি মাসেও একবার সশস্ত্র জঙ্গিরা প্রবেশ করেছিল। সেই সংঘর্ষে তিনজন সেনা সদস্য, একজন কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য এবং একজন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হয়েছিলেন। তিনজন জঙ্গিও ওই সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছিলেন।

পাম্পোরের এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এবারের হামলার সময়ে কোনো ক্লাস হচ্ছিল না বা কোনো শিক্ষার্থীও সেখানে ছিলেন না।

গত তিন মাস ধরে ভারত শাসিত কাশ্মীরে যে উত্তপ্ত পরিস্থিতি চলছে, তার প্রেক্ষিতে সেখানকার সব স্কুল কলেজের মতোই এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিও বন্ধ রয়েছে।

 


মন্তব্য