kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


'টানা এক বছর আমি প্রতিদিন স্বামীর সঙ্গে ... '

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১১ অক্টোবর, ২০১৬ ২২:৪১



'টানা এক বছর আমি প্রতিদিন স্বামীর সঙ্গে ... '

একটা দাম্পত্যকে মজবুত রাখতে মনের মিলন জরুরি। কিন্তু একইসঙ্গে প্রয়োজন শরীরী মিলনেরও।

কীভাবে একটা গোটা বছর প্রতিদিন উদ্দাম যৌনতা একটি সম্পর্ককে মধুর করে তুলেছে সারা জীবনের জন্য, তা পাঠকদের সঙ্গে শেযার করলেন ব্রিট্যানি নামে এই নারী। প্রতিবেদন এই সময়ের।

তিনি লিখছেন,

তিন বছর আগে আমাদের সম্পর্কটা ধীরে ধীরে খারাপ জায়গায় চলে যাচ্ছিল। নিজেকে ও সম্পর্কটাকে বাঁচানোর তাগিদ কাজ করছিল প্রতি মুহূর্তে। সেই ঝঞ্ছা কেটে গিয়েছে। টানা এক বছর আমি প্রতিদিন স্বামীর সঙ্গে সেক্সে লিপ্ত হয়েছি। জানি না আমাদের ঘনিষ্ঠ মুহূর্তগুলি আমাদের সন্তানরা দেখেছে কিনা। আমার মনে হয় দেখেনি। কিন্তু কোনও বাধা মানিনি। এমনকি ঋতুস্রাবের দিনগুলিতেও।

আসলে আমাদের তৃতীয় সন্তান হওয়ার পর আমরা বুঝতে পারছিলাম, আমার আর আমার স্বামী অ্যান্ডির মধ্যে কোথাও একটা দূরত্ব তৈরি হচ্ছে। নিজেকে নগ্ন দেখতেও ইচ্ছে করত না। সেক্সের সময় আলো নিভিয়ে রাখতাম। কয়েক মাস পর আর দূরত্বটা আরও বাড়ল। আমরা দু'জন দু'জনকে নগ্ন দেখতেই চাইতাম না। তখনই বুঝলাম, না এটাই ভাঙার শুরু। এখনই কিছু একটা করতে হবে।

একটা বন্ধুর কাছে শুনলাম, ওরও একই সমস্যা ছিল। কিন্তু কেটে গিয়েছে শুধুমাত্র প্রতিনিয়ত মিলনে। এবং তাও দিনের আলোয়। আইডিয়াটা খারাপ লাগল না। এক বছর টানা আমি সেই পন্থ নিলাম। প্রতিদিন সেক্স করতাম। একদিনও বাদ দিইনি। শুনতে অবাক লাগছে তো? কিন্তু এটাই সত্যি। শুরুর দিকে আমাদের কাছেও ব্যাপারটা আশ্চর্যের লাগত। কিন্তু কয়েক মাস বাদে এর সুফলটা বুঝতে শুরু করলাম। আমাদের সম্পর্কটায় বাঁধন এল। আমরা সব সময় একে অপরকে মিস করতাম।

আজ এত বছর পরেও সেই বাঁধন অটুট শুধু নয়, একে অপরকে ছাড়া চলে না। এখন আর সেক্স করারও প্রয়োজন হয় না। আজ আমরা সুখী। সত্যিই সুখী। অ্যান্ডিই আমার সবচেয়ে ভালো বন্ধু।


মন্তব্য