kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ভারতে টাকা শোধ করতে না পেরে বন্ধুকে স্ত্রী ধর্ষণের অনুমতি!

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ১৯:১৬



ভারতে টাকা শোধ করতে না পেরে বন্ধুকে স্ত্রী ধর্ষণের অনুমতি!

 স্বামী ৫০০০ টাকা শোধ করতে পারেননি। তাই বিনিময়ে স্ত্রীকে ধর্ষণের অধিকার দিলেন বন্ধুকে।

২৬ বছরের মেয়েটাকে ছিঁড়ে খেল সেই মানুষরূপী 'জানোয়ার'। এখানেই অবশ্য নিষ্কৃতি মেলেনি ওই তরুণীর। বিধ্বস্ত মেয়েটাকে ফের বিছানায় সঙ্গ দিতে হয় তাঁর স্বামীকে।

ভারতের গাজিয়াবাদের লোনি শহরের ঘটনা। চলতি মাসের ১ তারিখ ওই তরুণী অভিযোগ জানানোর পর তাঁর স্বামী নরেশ কুমার ও তার বন্ধু টিঙ্কু বর্মার বিরুদ্ধে পুলিশ FIR দায়ের করে। পুলিশ জানিয়েছে, লোনিতে স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে থাকত ৩০ বছরের নরেশ। সে তার বন্ধু টিঙ্কুর থেকে ৫০০০ টাকা ধার নিয়েছিল। ২৯ সেপ্টেম্বর তারা দুজনেই রাত ১১টা নাগাদ নরেশের বাড়ি গিয়ে মদ্যপান করে।

ধর্ষিতা তরুণী পুলিশকে জানিয়েছেন, 'আমার স্বামী টিঙ্কুকে বাড়িতে এনে মদ্যপান করে। যেহেতু নরেশ তার বন্ধুর থেকে ধার নেওয়া টাকা মেটাতে পারেনি, সেজন্য সে আমাকে টিঙ্কুর হাতে তুলে দেয়। আমাকে ধর্ষণ করতে বলে টিঙ্কুকে। ধর্ষণের পর টিঙ্কু আমাকে হুমকি দেয়, এ বিষয়ে লোক জানাজানি হলে সে আমার ভাইকে মেরে ফেলবে। টিঙ্কুর পর আমার সঙ্গে যৌনমিলনে আবদ্ধ হয় আমার স্বামী। '

তরুণীর অভিযোগের ভিত্তিতে নরেশ ও টিঙ্কুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে নরেশ গোটা ঘটনা অস্বীকার করলেও, টিঙ্কু স্বীকার করেছে সে মেয়েটির উর্ধাঙ্গে স্পর্শ করেছে। টিঙ্কু যখন তরুণীর পর যৌন উত্‍‌পীড়ন চালাচ্ছিল, তখন বাইরের গেটে দাঁড়িয়ে পাহারা দিচ্ছিল নরেশ।


মন্তব্য