kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সার্জিক্যাল স্ট্রাইক প্রমাণ করলে ভারতের ক্ষতি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ১৫:০৭



সার্জিক্যাল স্ট্রাইক প্রমাণ করলে ভারতের ক্ষতি

শল্য অভিযান বা সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের প্রমাণ ইস্যুতে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার রাজনৈতিক চাপের মুখে পড়লেও কোনোমতেই তা সামনে আনা উচিত নয় বলে মনে করছেন নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও বিশেষজ্ঞরা। গত ২৯ সেপ্টেম্বর পাক অধিকৃত কাশ্মীরে শল্য অভিযান চালিয়ে ৪০ জন জঙ্গিকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছিল ভারতীয় সেনা।

কিন্তু, পাকিস্তান ভারতের দাবিকে উড়িয়ে প্রমাণ চেয়েছে। ভারতের বক্তব্যের সারবত্তা নেই, আন্তর্জাতিক মহলে প্রচার করার মরিয়া চেষ্টাও করেছে নওয়াজ শরিফের সরকার। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল পর্যন্ত প্রমাণ সামনে আনার দাবি জানিয়েছেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও প্রমাণ প্রকাশ্যে আনা দেশের পক্ষে ক্ষতিকারক বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

কিন্তু কেন? প্রমাণ সামনে আনলে কী হতে পারে? এক জ্যেষ্ঠ সেনা কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ভারত প্রমাণ সামনে আনলে আখেরে লাভ পাকিস্তানের। কারণ প্রমাণ দেখে শল্য অভিযানের সাফল্যের রহস্য বিশ্বের কাছে ফাঁস হয়ে যাবে। আবার ভারতীয় সেনা কৌশলগতাবে কতটা এগিয়ে তারও আঁচ পেয়ে যাবে পাকিস্তান।  

এখানেই না থেমে তার আরও সংযোজন, দেশের কথা ভেবেই প্রমাণ সামনে আনার বিরুদ্ধে সেনা। প্রমাণ সামনে আনা উচিত বলে যারা গলা ফাটাচ্ছেন, তাদের পরিস্থিতিটা বোঝা উচিত।

সরকারি সূত্রে জানা গেছে, পাকিস্তানে শল্য অভিযান নিয়ে ভারতের হাতে পর্যাপ্ত প্রমাণ আছে। রয়েছে ভিডিও ফুটেজ, ছবিও। ওই সূত্রের দাবি, দুটি এজেন্সির মধ্যে একটি এজেন্সি টার্গেটস্থল লিপা, কেল, টাটাপানি ও ভিমবেড়ের পৃথক পৃথক স্যাটেলাইট ফোটো সরকারকে দিয়েছে।

সূত্রটি আরও জানাচ্ছে, দুটির মধ্যে একটি সংস্থার পাঠানো স্যাটালাইট ইমেজ সেনাদের সাহায্য করেছিল। হামলার পরিকল্পনা ও অপারেশনকে সফল করতে কার্যকরী ভূমিকা নিয়েছিল পাঠানো এইসব তথ্য।


মন্তব্য