kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শারাপোভার নির্বাসন কমিয়ে দিল আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০১:২৯



শারাপোভার নির্বাসন কমিয়ে দিল আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত

অবশেষে স্বস্তি৷ ডোপ কেলেঙ্কারিতে শারাপোভার নির্বাসন ২ বছর থেকে কমে দাঁড়াল ১৫ মাস৷ নির্দেশ সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালতের৷ ২০১৭ ফরাসি ওপেনে দেখা যেতে পারে মাশাকে৷
ডোপিং কেলেঙ্কারির ছায়া সরিয়ে অবশেষে টেনিস সার্কিটে ফিরছেন তিনি৷ তিনি, মারিয়া শারাপোভা ২০১৭ ফরাসি ওপেনেই Racket হাতে দাপাতে পারেন টেনিস সার্কিট৷ মঙ্গলবার কোর্ট অফ আরবিট্রেশন ফর স্পোর্টস বা ক্যাসের রায়ে হঠাত্‍ই স্বস্তির হাওয়া৷ ডোপিং কেলেঙ্কারির দায়ে তাঁর নির্বাসনের মেয়াদ ২ বছর থেকে কমিয়ে ১৫ মাস করার নির্দেশ দিল সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালত৷ এদিন এক বিবৃতিতে ক্যাস জানায়, ‘নিঃসন্দেহে ডোপিং-বিরোধী আইন লঙ্ঘন করেছেন শারাপোভা৷ কিন্তু, এছাড়া আর কোনও গুরুতর অপরাধ করেননি৷ তাই, তাঁর নির্বাসনের মেয়াদ ২ বছরের বদলে ১৫ মাস করা হল৷’
নির্বাসনের মেয়াদ কমায় উচ্ছ্বসিত মাশাও৷ এক বিবৃতিতে প্রাক্তন এক নম্বর টেনিস তারকা জানিয়েছেন,  ‘মার্চ মাসটা ছিল আমার জীবনের সবচেয়ে কঠিন সময়৷ টেনিস থেকে নির্বাসনে পাঠানো হয় আমায়৷ আর, এই দিনটা আমার জীবনের অন্যতম আনন্দের দিন৷ এদিনই জানতে পারলাম আগামী বছরের এপ্রিলে টেনিস কোর্টে ফিরতে পারব৷’
অস্ট্রেলিয়া ওপেন চলাকালীন ডোপ টেস্টে উত্তীর্ণ হতে পারেননি মাশা৷ নিজেই জানান, ২০০৬ থেকে তিনি মেলডোনিয়াম নামে একটি ড্রাগ নিতেন৷ অ্যান্টি-ডোপিং এজেন্সি ওই ড্রাগটিকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করলেও বিষয়টি তাঁর নজর এড়িয়ে যায়৷ বিস্ফোরক স্বীকারোক্তির পরই নেমে আসে নির্বাসনের খাঁড়া৷ ৫ বারের গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ীকে ২ বছরের নির্বাসনে পাঠায় আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন৷ সেই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালতে যান শারাপোভা৷ শেষ পর্যন্ত শাস্তির মেয়াদ কমে হল ১৫ মাস৷


মন্তব্য