kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মহাকাশ থেকে পরমাণু হামলার ব্যবস্থা করছে রাশিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৩ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:৫৬



মহাকাশ থেকে পরমাণু হামলার ব্যবস্থা করছে রাশিয়া

পরমাণু অস্ত্র নিয়ে গবেষণা চলছে বিভিন্ন দেশে। এবার মহাকাশ থেকে পরমাণু হামলা চালানোর ব্যবস্থা করছে রাশিয়া।

শুনলে মনে হতে পারে আশির দশকের মাঝামাঝি ‘ঠাণ্ডা যুদ্ধ’ নিয়ে তৈরি কোনও হলিউড মুভির চিত্রনাট্য। কিন্তু রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এই পরিকল্পনা একেবারে বাস্তব।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা বিজ্ঞানীরাই জানাচ্ছেন সেই খবর। মহাকাশ থেকে পরমাণু হামলা চালানোর জন্য বিশেষ যুদ্ধযান তৈরি করছে মস্কো। এই খবর নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা বিশ্বকে। রুশ মিলিটারি অ্যাকাডেমির স্ট্র্যাটেজিক মিসাইল ফোর্স বিষয়ের অধ্যাপক তথা রাশিয়ার এই হাই-প্রোফাইল প্রকল্পের অন্যতম প্রধান কর্তা কর্নেল অ্যালেক্সেই সোলোদোভনিকভ জানিয়েছেন, যে যুদ্ধযানটি তৈরি করছে রাশিয়া সেটি একাধারে যুদ্ধবিমান এবং মহাকাশযান। এটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘স্ট্র্যাটেজিক বম্বার’।

কর্নেল সোলোদোভনিকভের কথায়, স্ট্র্যাটেজিক বম্বার সাধারণ বিমান ঘাঁটি বা রানওয়ে থেকেই উড়বে। যতক্ষণ সেটি বায়ুমণ্ডলের মধ্যে থাকবে, ততক্ষণ কেরোসিনে চলবে। বায়ুমণ্ডল ছাড়িয়ে মহাকাশে ঢুকে যাওয়ার সময় কেরোসিনের বদলে মিথেন-অক্সিজেন জ্বালানি ব্যবহার করতে শুরু করবে এই স্ট্র্যাটেজিক বম্বারের ইঞ্জিন। পাক-ডিএ নামে এই স্ট্র্যাটেজিক বম্বারের উপস্থিতি কোনও রাডারে ধরা পড়বে না। পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তে পরমাণু বোমা ফেলতে পারবে পাক-ডিএ।  

তবে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এখনই এই হাই-প্রোফাইল প্রকল্প নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাইছে না। কিন্তু রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক মিসাইল ফোর্সের কমান্ডার জেনারেল সেরগেই কারাকায়েভ জানাচ্ছেন, পাক-ডিএ স্ট্র্যাটেজিক বম্বারের ইঞ্জিনের মডেল ইতিমধ্যেই তৈরি হয়ে গিয়েছে এবং পরীক্ষিতও হয়েছে। পরবর্তী দু’বছর প্রকল্পের বিজ্ঞানীরা হার্ডওয়্যারের ওপর কাজ করবেন।  

২০২০ সালের মধ্যে রাশিয়ার স্ট্র্যাটেজিক বম্বার তৈরি হয়ে যাবে বলেও মনে করছেন কমান্ডার কারাকায়েভ।
সূত্র- কলকাতা টুয়েন্টিফোর


মন্তব্য