kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘পাকিস্তানের বিমানবাহিনী যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:১৪



‘পাকিস্তানের বিমানবাহিনী যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে’

কয়েকদিন আগেই এক পাক মন্ত্রী ভারতে পরমাণু বোমা ফেলার হুমকি দিয়েছিলেন। লাহৌরেই আবার পাকিস্তানের পরমাণুকেন্দ্র।

সেখানকার আকাশে এবার ২৯ হাজার ফুটের নীচ দিয়ে বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল।

দু’দেশের মধ্যে মৌখিক চাপান-উতোর যতই চলুক, যুদ্ধ নিয়ে ভাবছে পাকিস্তানও। ভারতের সঙ্গে যুদ্ধের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছে না তারাও। এবার কার্যক্ষেত্রেই মিলল তার প্রমাণ। আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত লাহৌরের আকাশ দিয়ে যে কোনো বিদেশি সংস্থার বিমানকে যেতে হবে ২৯ হাজার ফুটের উপর দিয়ে। এমনটাই নির্দেশ জারি করা হয়েছে পাক সরকারের পক্ষ থেকে।

উরি হামলার পর থেকেই দু’দেশের মধ্যে তৈরি হয়েছে জটিল পরিস্থিতি। সিন্ধু জলচুক্তি বাতিল নিয়ে ভারতের জল্পনা, এ ছাড়া গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তানকে পাল্টা আঘাত— এসবের পর থেকেই চাপে রয়েছে পাক সরকার।

সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের পর আরও আক্রমণের আশঙ্কা করছে পাক সরকার বলেই মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল। সেই কারণেই প্রথমে করাচিতে ৩৩ হাজার ফুটের নীচ দিয়ে বিমান চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল। এর পর লাহৌরেও এই নিষেধাজ্ঞা জারি হল। প্রায় গোটা দেশেই বিমানের উপর বিধি-নিষেধ জারি করা হয়েছে।

ভারতের এক বিমানবাহিনীর কম্যান্ডার একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যকে জানিয়েছেন, ‘পাক সরকারের এই পদক্ষেপের ফলে পাকিস্তানের উপর দিয়ে পশ্চিম এশিয়া বা ইউরোপে ভারতের যে বিমানগুলি যায়, তাঁদের অনেকটা ঘুরে যেতে হবে। পাকিস্তানের বিমানবাহিনী যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে। সম্ভবত সেই কারণেই বিশেষ নীচ দিয়ে বিমানচলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ’

তবে বিমানবাহিনীর এই পদক্ষেপ যুদ্ধের প্রস্তুতি না রুটিন মহড়া, সে বিষয়ে বিশেষ তথ্য পাওয়া যায়নি। কয়েকদিন আগেই এক পাক মন্ত্রী ভারতে পরমাণু বোমা ফেলার হুমকি দিয়েছিলেন। লাহৌরেই আবার পাকিস্তানের পরমাণুকেন্দ্র। সেখানকার আকাশে এবার ২৯ হাজার ফুটের নীচ দিয়ে বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল। তাই দুইয়ে দুইয়ে চার করছেন অনেকেই। এই পরিস্থিতিতে পাকিস্তানের সরকারি বিমানসংস্থাকে ভারতের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দেয়া হবে কি না, সে বিষয়েও চিন্তা-ভাবনা শুরু করেছে প্রধানমন্ত্রীর দফতর।

সূত্র: এবেলা


মন্তব্য