kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সার্ক সম্মেলনের উপযোগী পরিবেশ তৈরিতে এগিয়ে আসার আহ্বান নেপালের

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১০:৪৯



সার্ক সম্মেলনের উপযোগী পরিবেশ তৈরিতে এগিয়ে আসার আহ্বান নেপালের

বেশ কয়েকটি সদস‌্য রাষ্ট্রের বয়কটের ঘোষণায় স্থবির সার্ক। এ প্রেক্ষাপটে সম্মেলনের উপযোগী পরিবেশ তৈরিতে এগিয়ে আসতে জোটের দেশগুলোর প্রতি আহ্বান রেখেছে সার্কের বর্তমান চেয়ারম‌্যান নেপাল।


নভেম্বরে পাকিস্তানের ইসলামাবাদে অনুষ্ঠেয় সম্মেলনে অংশ না নিতে বাংলাদেশ, ভারত, ভুটান ও আফগানিস্তানের সিদ্ধান্ত পাওয়ার কথা জানিয়ে বুধবার এক বিবৃতিতে এই আহ্বান জানানো হয়।
গত ১৮ সেপ্টেম্বর ভারত শাসিত কাশ্মিরে সেনা ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলার পর থেকে নয়া দিল্লি ও ইসলামাবাদের মধ‌্যে কূটনৈতিক পর্যায়ে উত্তেজনা চলছে, যার প্রতিফলন জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনেও ঘটে।
পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জঙ্গিদের মদদ দেওয়ার অভিযোগ তুলে সার্ক সম্মেলনের পরিবেশ ‘নেই’ জানিয়ে মঙ্গলবার ইসলামাবাদ সম্মেলন বয়কটের ঘোষণা দেয় ভারত। ভারতের পথ অনুসরণ করে আফগানিস্তান ও ভুটানও।
একই সময়ে বাংলাদেশও ইসলামাবাদ সম্মেলনে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্ত জানায়। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের যুদ্ধাপরাধের বিচার নিয়ে পাকিস্তানের হস্তক্ষেপের দিকে ইঙ্গিত করেন।
চারটি দেশ অংশ না নেওয়ায় সিদ্ধান্ত জানানোয় ইসলামাবাদে অনুষ্ঠেয় দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক সহযোহিতা সংস্থার ১৯তম সম্মেলন অনিশ্চয়তায় পড়ার মধ‌্যে নেপালের আহ্বান এল।
নেপালের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, পুরো পরিস্থিতি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে তারা।
“বর্তমান চেয়ারম‌্যান হিসেবে নেপাল সরকার আকুল আবেদন জানাচ্ছে, সার্ক সনদের প্রতি অঙ্গীকার থেকে জোটে সদস‌্য সব দেশ যেন সম্মেলনের পরিবেশ তৈরিতে সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসে। ”
বাংলাদেশ, ভারত, আফগানিস্তান ও ভুটানের সম্মেলনের অংশ না নেওয়ার আনুষ্ঠানিক সিদ্ধান্তের চিঠি পাওয়ার কথা জানিয়েছে নেপাল সরকার।
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা সারতাজ আজিজও স্বীকার করেছেন, জোটের আটটি দেশের চারটি বয়কটের সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ইসলামাবাদের সম্মেলন স্থগিত হতে পারে।     তবে ভারতের সিদ্ধান্তকে দুঃখজনক আখ‌্যায়িত করেছে ইসলামাবাদ।


মন্তব্য