kalerkantho

শুক্রবার । ২ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বিবিসি বাংলার খবর

আলেপ্পোর যুদ্ধ : ২০ লাখ লোক পানি সঙ্কটে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪২



আলেপ্পোর যুদ্ধ : ২০ লাখ লোক পানি সঙ্কটে

সিরিয়ায় জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক দূত ইয়েন এগালান আলেপ্পোর আশেপাশে লড়াই বন্ধ করার প্রক্রিয়ায় নেতৃত্ব দেয়ার জন্য রাশিয়া ও আমেরিকার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন, বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত এলাকায় যেসব বেসামরিক মানুষ আটকা পড়েছেন তাদের কাছে ত্রাণ পৌঁছানোর স্বার্থে গোলাবর্ষণ বন্ধ হওয়া উচিত।


ওয়াশিংটন ও মস্কোর মধ্যস্থতায় যে যুদ্ধবিরতি হয়েছিল তা ভেঙে পড়ার সাথে সাথেই সিরিয়ার বিদ্রোহী অবস্থানগুলোর ওপর সরকারি বাহিনী এবং রুশ জঙ্গি বিমানের অভিযান তীব্রতর হয়েছে।
আলেপ্পোর পূর্বদিকে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলো পুনর্দখল করার এই অভিযানকে একটি স্থল অভিযানের প্রস্তুতি হিসেবেও বর্ণনা করা হচ্ছে।
আলেপ্পোতে বোমা ও গোলার আঘাতে বহু ভবন ভেঙে পড়েছে, তার নিচে এখনো বহু মানুষ আটকা পড়ে আছেন বলে ত্রাণ সংস্থাগুলো জানাচ্ছে।
এরই মধ্যে শনিবার সরকারি বাহিনী হানদারাত নামে আলেপ্পোর উত্তরদিকে একটি কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ বিদ্রোহী ঘাটি দখল করেছিল।
কিন্তু এখন ব্রিটেন ভিত্তিক একটি সিরিয় মানবাধিকার সংস্থা বলছে, গত রাতে বিদ্রোহীরা পাল্টা এক আক্রমণ চালিয়ে ঘাঁটিটি আবার দখল করে নিয়েছে।
আজ সিরিয়া ও রাশিয়ার যুদ্ধবিমানগুলো এর ওপর বোমা বর্ষণ করেছে।
এই ঘাটিটি গুরুত্বপূর্ণ,কারণ এটা এমন একটা উঁচু জায়গায় অবস্থিত যেখান থেকে একটি গুরুত্বপূর্ণ রসদ সরবরাহের পথের ওপর নজর রাখা যায়।
শনিবারের বোমাবর্ষণে অন্তত ২৫ জন লোক নিহত হয়েছে বলে ব্রিটেন-ভিত্তিক সংস্থাটি বলছে।
আলেপ্পো শহরের ২০ লাখ লোক এখন পানির সংকটের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে।
কয়েক দিন আগেই জাতিসংঘের একটি ত্রাণ বহরের ওপর বিমান হামলায় ১৮টি ট্রাক এবং একটি গুদাম ধ্বংস হয়ে যায়।
জাতিসংঘ এর তদন্ত দাবি করেছে। ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, তার মনে হচ্ছে যে রাশিয়া এই যুদ্ধ দীর্ঘায়িত করতে চাইছে।
তার কথায়, রাশিয়া যদি ইচ্ছাকৃতভাবে ওই ত্রাণ-বহরে হামলা করে থকে তাহলে তা যুদ্ধাপরাধের শামিল হতে পারে।


মন্তব্য