kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:৩৮



যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা অঙ্গরাজ্যের তুলসায় এক কৃষ্ণাঙ্গকে গুলি করার ঘটনায় এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। শুক্রবার রাষ্ট্রপক্ষের এক আইনজীবী এ কথা জানিয়েছেন।

গত সপ্তাহে ওই পুলিশ কর্মকর্তা বেট্টি শেফবি টেরেন্স ক্রাচারকে গুলি করে হত্যা করেন। ওই সময় ক্রাচার তার বন্ধ হয়ে যাওয়া গাড়ির পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন এবং নিরস্ত্র ছিলেন।

তুলসায় গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ নিহতের পর পুলিশ কর্মকর্তা শেলবি জানিয়েছিলেন, নিহত ক্রাচার তার নির্দেশ অমান্য করছিলেন এবং তিনি গাড়ির কাছাকাছি যাওয়া চেষ্টা করলে জানালা দিয়ে ক্রাচার গুলি করেন।

শেলবির আইনজীবী স্কট উড জানান, শেলবি মনে করেছিলেন ক্রাচার ড্রাগ সেবন করা অবস্থায় ছিলেন। ক্রাচারের গাড়িতে ড্রাগ পাওয়া গেছে।

ক্রাচারের পরিবার পুলিশের এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে। তারা দাবি করে, গুলির সময় গাড়ির জানালা বন্ধ ছিল।

পুলিশ ক্রাচারের গাড়িতে কোনো আগ্নেয়াস্ত্র পায়নি। গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর আরেক পুলিশ কর্মকর্তা কর্তৃক অচেতন করার অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেন। এ হত্যার প্রতিবাদে তুলসায় প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। এসব প্রতিবাদ ছিল শান্তিপূর্ণ।

প্রসিকিউটর কুঞ্জয়েইলার জানান, পুলিশ কর্মকর্তা শেলবির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। হত্যার শাস্তি হিসেবে তার চার বছরের কারাদণ্ড হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের জাস্টিস ডিপার্টমেন্ট পৃথক আরেকটি তদন্ত শুরু করেছে যাতে খতিয়ে দেখা হয়েছে ক্রাচারের নাগরিক অধিকার খর্ব করা হয়েছি কিনা।

এদিকে, নর্থ ক্যারোলিনার শার্লটে পুলিশ কর্তৃক কৃষ্ণাঙ্গকে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদে তৃতীয় রাতেও সহিংসতা অব্যাহত ছিল। পুলিশ দাবি করছে কেইথ লেমন্ট স্কট নামের ওই কৃষ্ণাঙ্গের সঙ্গে অস্ত্র ছিল। তবে তার পরিবার এ অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

কারফিউ অগ্রাহ্য করে বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত বিক্ষোভ করেন। রাস্তায় অবস্থান নিয়ে গান গেয়ে তারা এ প্রতিবাদ করেন।

পুলিশ কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মাইক কাম্পাঙ্গনা জানান, প্রতিবাদ শান্তিপূর্ণ থাকায় বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে কারফিউ ভঙ্গের কারণে পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। বৃহস্পতিবার রাতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন।

দুই বছর ধরে কৃষ্ণাঙ্গদের বিরুদ্ধে পুলিশ সদস্যদের শক্তি প্রয়োগের প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিক্ষোভ চলে। এখন এটা নির্বাচনের একটি ইস্যুতে পরিণত হয়েছে।

প্রথম প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্ক শুরু হওয়ার চার দিন পূর্বে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, মাদকের জন্যই এসব সহিংসতা করা হচ্ছে। বিপরীতে ডেমোক্রেটিক দলের ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী টিম কেইন বলেছেন, পুলিশ কর্তৃক কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার তালিকা দিন দিন দীর্ঘ হচ্ছে।


মন্তব্য