kalerkantho


ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থাকে আরও শক্তিশালী করা হচ্ছে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৫:১৯



ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থাকে আরও শক্তিশালী করা হচ্ছে

ইন্টারনেট এবং প্রযুক্তির উন্নয়নে বাড়তি এক হাজার কর্মী নিতে যাচ্ছে ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থা 'এমআই৬'। ২০২০ সালের মধ্যেই কর্মী সংখ্যা আড়াই হাজার থেকে সাড়ে তিন হাজার করার পরিকল্পনা করছে সংস্থাটি, জানিয়েছে বিবিসি।

বাড়তি এ সকল কর্মীদেরকে জনগণ এবং অপারেশনের নিরাপত্তার স্বার্থে ব্যবহার করবে সংস্থাটি। এ বিষয়ে সংস্থাটির পক্ষ থেকে এখনও কোনো অফিসিয়াল ঘোষণা দেওয়া না হলেও বিবিসি নিশ্চিত করেছে বাড়তি ৪০ শতাংশ কর্মী আসবে 'হোয়াইটহল' সূত্রের মাধ্যমে।

পাশ্চাত্য সমাজের প্রায় সকলেই ইন্টারনেটে তাদের সন্ধান রেখে যাওয়ায় বর্তমানে কল্পিত পরিচয় তৈরি করাটা বেশ কষ্টকর হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর তাই সারা বিশ্বের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো কিভাবে প্রচ্ছন্নভাবে কাজ করতে পারে সেটি নিয়ে পরিকল্পনা করছে।

'ফেসিয়াল রিকগনিশন' প্রযুক্তিও শেষ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। যার কারণে গোয়েন্দা কর্মকর্তা গুপ্ত পরিচয়ে কোথাও ভ্রমণকালে খুব সহজেই অনলাইনে তাদের আসল পরিচয় বের করে ফেলা যায়। 'এমআই৬' বা 'সিআইএ' যোগদানের পূর্বে তাদের অনলাইনের ছবি দেখেই এ সকল কর্মীদেরকে শনাক্ত করা সম্ভব বলে জানানো হয়।

২০ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটন ডিসিতে জনগণের উপস্থিতিতে 'সিক্রেট ইন্টেলিজেন্স সার্ভিস' এর প্রধান অ্যালেক্স ইয়াংগার বলেন, "তথ্য বিপ্লব মৌলিকভাবে আমাদের অপারেশনের পরিবেশ পরিবর্তন করেছে। পাঁচ বছরের মধ্যে এখানে দুই ধরনের গোয়েন্দা সংস্থা থাকবে- তারা যারা ব্যাপারটি বুঝে ও উন্নতি করেছে এবং তারা যারা বুঝে না এবং উন্নতি করছে না। " তিনি যযোগ করেন, "আমি মনে করি এমআই৬ সাবেক শ্রেণিতে থাকবে। "

গোয়েন্দা খাতে বাড়তি ১৯০০ কর্মী নেওয়ার অঙ্গীকার করা হয়েছে। এর মধ্যে বেশির ভাগই নেবে এমআই৬। আর বাকি কর্মীদেরকে নেবে সিকিউরিটি সার্ভিস (এমআই৫), গভর্নমেন্ট কমিউনিকেশন্স হেডকোয়ার্টার্স এবং পুলিশের কাউন্টার টেররিস্ট কমান্ড।


মন্তব্য