kalerkantho

রবিবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


‘আমার ভাই কিন্তু পুলিশ’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:৪৪



‘আমার ভাই কিন্তু পুলিশ’

উত্যক্তকারীদের পুলিশের ভয় দেখাতে নতুন কায়দা নিয়েছেন ভারতের মধ্যপ্রদেশের স্কুল কলেজের ছাত্রীরা। নিজেদের হোয়াটস্অ্যাপ ডিসপ্লে পিকচার বা ডি পি-র সেলফিতে সত্যিই দেখা যাচ্ছে ছাত্রীদের সঙ্গে পুলিশের ছবি।

স্ট্যাটাসে তারা লিখছেন, 'আমার ভাই কিন্তু পুলিশ!' ছেলে ছোকরাদের হাতে উত্যক্ত হওয়ার হাত থেকে বাঁচতেই এই নতুন কায়দা নিয়েছেন তাঁরা।

"গত এক সপ্তাহে প্রায় নয়শো ছাত্রী নিজেদের ডি পি বদলে ফেলেছেন শুধু হোসাঙ্গাবাদ শহরেই," বিবিসি বাংলাকে বলছিলেন জেলার পুলিশ সুপারিন্টেনডেন্ট আশুতোষ সিং।   সিংয়ের কথায়, নিয়মিত বহু অভিযোগ আসে ইভ টিজিং আর হোয়াটস্অ্যাপে মেয়েদের উত্যক্ত করা বা স্টকিং, অর্থাৎ পিছু নেওয়ার। কিন্তু তারা যদি দেখে মেয়েটির দাদা বা ভাই পুলিশ, তাহলে তারা ভয় পাবে। সেই ভেবেই এই প্রকল্প হাতে নিয়েছে পুলিশ।

তিনি বলছিলেন, "উত্যক্ত করতে শুরু করার আগেই যদি আমরা অপরাধটা থামাতে পারি, সেই চেষ্টা করাই তো ভাল। " জেলাটিতে একটি প্রকল্প রয়েছে বর্ণাঞ্জলি নামে, যার অধীনে পুলিশ কর্মীরা নিয়মিত স্কুলগুলিতে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে সময় কাটান।

এবার সেই প্রকল্পটিকেই আরও এগিয়ে নিয়ে গিয়ে স্কুল কলেজের ছাত্রীদের সঙ্গে এখন সেলফি তুলছেন পুলিশ কর্মীরা। ডি পি তে হিন্দিতে লেখা হচ্ছে 'টি আই মেরা ভাই হ্যাঁয়' - অর্থাৎ টি আই বা থানা ইনচার্জ আমার ভাই হয়।

পুলিশ সুপার বলছেন এই নতুন প্রকল্প শুরু হওয়ার পরে হোসঙ্গাবাদ শহরে অন্তত কিছুটা হলেও মেয়েদের উত্যক্ত করার অভিযোগ কমেছে। বিবিসি


মন্তব্য