kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শর্ট স্কার্ট পড়ে বাসে ওঠায় তরুণীর মুখে লাথি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২১:৩৪



শর্ট স্কার্ট পড়ে বাসে ওঠায় তরুণীর মুখে লাথি

গাড়ি না আসায় সেদিন ২৩ বছরের মেয়েটা বাসে উঠেছিল। বাসে ওঠার পর বসার জায়গা না পাওয়ায় দাঁড়িয়ে ছিল।

এরপরই ঘটল কাণ্ডটা। একটা লোক এসে ওকে ধাক্কা মেরে ফেলে দিল। তারপরই ওর মুখে সজোরে লাথি। বাকিটা ওর মনে নেই। এমনই ঘটনা ঘটল তুর্কির এক বাসে।  

২৩ বছরের আইসগুল তেরজি নামের এক তরুণীকে মুখে লাথি মারার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় ৩৫ বছরের এক ব্যক্তি। কিন্তু গ্রেপ্তারের পরে পুলিসের কাছে সেই ব্যক্তির বক্তব্য, আমি যা করেছি জাতির স্বার্থে। মেয়েদের অধিকার নেই শর্টস পড়ার। ওটা জাতির অপমান।  

মারধরের শিকার তেরজি পেশায় নার্স। ৩৫ বছরের শক্তিশালী (শারীরিক) ব্যক্তির লাথির আঘাতে সে এখনও হাসপাতালে ভর্তি। মেয়েটির মুখে অসংখ্যা চোটের দাগ।

তবে সেদিন বাসে লাগানো সিসিটিভিতে ধরা পড়ে যায় যুবতীকে লাথি মারার ভিডিও। ভিডিওতে দেখা যায়, লাথি মারার পর জোরে চেঁচিয়ে সেই ব্যক্তি বলছেন, যে সব মেয়েরা শর্টস পরে তাদের মরাই ভাল। পুলিসের কাছে তিনি বলেন, ওমন খারাপ পোশাক দেখে ওর রাগ হয়, তারপরেই সে মারে। সূত্র: জি নিউজ


মন্তব্য